গঠন হয়নি পঞ্চায়েত, সই করাতে ভরসা বিধায়ক

দ্য ওয়াল ব্যুরো, জলপাইগুড়ি:  গঠন হয়নি পঞ্চায়েত। তৈরি হয়নি জেলা পরিষদ। তারই জেরে সই করতে করতে কালঘাম ছুটছে রাজগঞ্জের বিধায়কের। বুধবারও ইদের কর্মসূচি ছিল অনেক। কিন্তু সকাল থেকে বাড়ির সামনে পড়ুয়াদের ভিড়ে বাতিল করলেন সমস্তই।

এখনও শপথ নেওয়া হয়নি পঞ্চায়েত প্রধান বা অন্যান্য প্রতিনিধিদের। কন্যাশ্রী বা শিক্ষাশ্রী ফর্মে সই করবেন কে? বেশিরভাগেরই বাস প্রত্যন্ত এলাকায়। গেলেই পাওয়ার উপায় নেই প্রশাসনের আধিকারিকদের। তাই উপায় বলতে একমাত্র বিধায়ক। তাই সকাল থেকে ভিড় উপচে পড়ছে খগেশ্বর রায়ের বাড়িতে। পরিস্থিতি এমন যে নাওয়া খাওয়ার সময় পর্যন্ত নেই। রোজ প্রায় ৭০০ থেকে হাজার আবেদন পত্র যাচাই করে তাতে সই করতে গিয়ে রীতিমতো কাহিল অবস্থা তাঁর।

খগেশ্বরবাবু জানালেন, তাঁর এলাকার ছেলে মেয়েরা গত কয়েকদিন থেকেই সকাল হলেই চলে আসছেন কন্যাশ্রী বা অন্যান্য অনলাইনের আবেদনপত্র নিয়ে। সই করানোর জন্য। তাদের সেইসব আবেদনপত্র জমা নিয়ে চলছে যাচাই করার কাজ। তারপরে সই। তিনি বলেন, “দিনভর এই ছোট ছোট পড়ুয়াদের আবেদন পত্রে সই করতে করতে হাত ব্যাথা হয়ে যাচ্ছে। গত কালও ফের দু হাজার সার্টিফিকেট ছাপিয়ে আনলাম। তাড়াতাড়ি শপথ গ্রহণ হলে মানুষের হয়রানি কমে। ”

২৫-৩০ কিলোমিটার দূর থেকে আসছে ছেলেমেয়েরা। সুমনা রায় নামে এক ছাত্রী এ দিন এসেছিলেন চাউলহাটি থেকে। যা কিনা বিধায়কের বাড়ি পাতিলাভাসা থেকে প্রায় ২৭ কিলোমিটার দূরে। আজ ইদের সকালে বিভিন্ন জায়গায় যাওয়ার কথা ছিল তাঁর। খগেশ্বরবাবু জানালেন, “কিন্তু এই ফর্মে সই করতে গিয়ে আর বের হওয়া হয়নি বাড়ি থেকে।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More