শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৬

পরকীয়ার জেরে ইটাহারে তুলকালাম, বোমাবাজি, হাসপাতালে জখম তিন

দ্য ওয়াল ব্যুরো, উত্তর দিনাজপুর : রাজনীতির লড়াই নয়, নয় জমি বিবাদ বা পুরনো কোনও শত্রুতার জেরে সংঘর্ষ। স্রেফ পরকীয়া নিয়ে তেতে উঠল পাশাপাশি দুটি গ্রাম। পরের পর বোমাবাজিতে কেঁপে উঠল গোটা তল্লাট। সংঘর্ষে জখম হলেন দু পক্ষের বেশ কয়েকজন। তিনজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকায় চলছে পুলিশের টহল।

পুলিশসূত্রে জানা গিয়েছে, ইটাহার থানার গুলন্দর ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের পাড়ের গ্রামের লেদ কারখানার কর্মী মজিবুর আলির সঙ্গে পাশের গ্রাম গুলন্দর ১ গ্রাম পঞ্চায়েতের বেলুয়া গ্রামের এক মহিলার প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়। দুজনেই বিবাহিত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ইটাহারের একটি মাঠে যখন তাঁরা বসে গল্প করছিলেন, সেইসময়  মজিবুরের বাড়ির লোকজন তাঁদের দেখতে পেয়ে সেখানে চড়াও হন। দুজনকে নিয়ে আসা হয়  পাড়ের গ্রামে। অভিযোগ, এ সময় মারধর করা হয় মুজিবরের প্রেমিকা ওই বিবাহিত মহিলাকে। খবর জানাজানি হতেই বেলুয়া গ্রাম থেকে সেখানে ছুটে যান ওই মহিলার বাড়ির লোকজন।

এরপরেই দুই পাড়ার লোকজন আলোচনায় বসেন। সিদ্ধান্ত হয়, দুজনকে আর মেলামেশা করতে দেওয়া হবে না। এরপর বেলুয়া গ্রামের বাসিন্দারা যখন নিজেদের গ্রামে ফেরত যাচ্ছিলেন, সে সময় আচমকাই তাদের উপর বোমাবাজি শুরু হয় বলে অভিযোগ। এখানেই শেষ নয়। ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করারও অভিযোগ ওঠে। শুরু হয় দুই গ্রামের লোকেদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ। আহত হন বেশ কয়েকজন। এদের মধ্যে কয়েকজন মহিলাও রয়েছেন। আহতদের মধ্যে এক মহিলা–সহ তিনজনকে রায়গঞ্জ সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাঁদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ইটাহার থানার পুলিশ।

Shares

Comments are closed.