কুঁদঘাটের ম্যানহোলে তলিয়ে যান সাত সাফাই-শ্রমিক, উদ্ধারের পরে মৃত চার জন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কুঁদঘাটে ম্যানহোলে নেমে সাফাই করতে গিয়ে তলিয়ে যান তাঁরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার হলেও শেষরক্ষা হল না। হাসপাতালে প্রাণ গেল চারজনেরই। আরও তিন জন শ্রমিক আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি। ওই সাত জন শ্রমিক সঠিক সরঞ্জাম ও পোশাক-সহ ম্যানহোলে নেমেছিলেন কিনা, সে নিয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত চার জনেরই বয়স ২০ থেকে ২৫-এর মধ্যে। তাঁদের নাম জাহাঙ্গির আলম, মহম্মদ আলমগির, লিয়াকত আলি এবং সাবির হোসেন। সকলেই মালদহের হরিশচন্দ্রপুরের বাসিন্দা। শহরে এসে পুরসভার ঠিকা সাফাইকর্মী হিসেবে কাজ করতেন তাঁরা।

আজ, বৃহস্পতিবার সকালে কুঁদঘাট এলাকার ১১৪ নম্বর ওয়ার্ডে নেতাজি মেট্রো স্টেশনের কাছে পাম্পিং স্টেশন তৈরির কাজের জন্য সাত জন ঠিকা সাফাইকর্মী ম্যানহোল পরিষ্কার করতে নামেন। কাদা এবং পলি জমে ওই ম্যানহোল আটকে গিয়েছিল। জানা গেছে, অনেকক্ষণ ওই সাত জন উঠছেন না দেখে অন্যান্য কর্মচারী ও স্থানীয় এলাকাবাসীদের সন্দেহ হয়। তাঁরা পুলিশ ও দমকলে খবর দেন। এর পরেই দমকল, পুলিশ এবং ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট টিমের আধিকারিকরা পৌঁছে খোঁজ শুরু করেন।

প্রায় দু’ঘণ্টা পরে বেলা ১২টা নাগাদ নিখোঁজ সাত শ্রমিককেই উদ্ধার করা হয়। প্রথমে ৭ জনকে বাঘাযতীন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে দু’জনের অবস্থা খারাপ হলে ওই ২ জনকে এসএসকেএম হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানে খানিক পরেই ওই দু’জনের মৃত্যু হয়। বাঘাযতীন হাসপাতালেও মারা যান দু’জন। বাকি ৩ জনের চিকিৎসা চলছে বাঘাযতীন হাসপাতালে।

প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, হঠাৎ করে জল বেড়ে যায় ম্যানহোলে, তাতেই ঘটে এই বিপত্তি। আচমকা তলিয়ে গিয়ে প্রায় ২ ঘণ্টা ম্যানহোলের ভিতরে আটকে ছিলেন তাঁরা। উদ্ধার করতে বেশ খানিকটা সময় লাগে। বিপর্যয় মোকাবিলা দলের ডুবুরি নামিয়ে খোঁজ মেলে তাঁদের। 

এই ঘটনায় সরব হয়েছে শ্রমিক সংগঠনগুলি। অভিযোগ, শ্রমিকদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে না সরকার। বস্তুত, ভোটের আগে সব পুর এলাকাতেই ম্যানহোল এবং নিকাশি নালা পরিষ্কারের কাজ হচ্ছে। অথচ শ্রমিকদের কোনও সুরক্ষা নেই এই কাজে। মানবাধিকার সংগঠনগুলি বহুদিন ধরেই দাবি জানিয়ে আসছে, মানুষকে না নামিয়ে যন্ত্র দিয়ে সাফাই কাজ করতে। কিন্তু তার পরেও এই শ্রমিকদের ঝুঁকি নেওয়ার বিরাম নেই।

ঘটনার খবর পেয়ে পৌঁছন তৃণমূল মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। তিনি বলেন, “বহু বছর পরে, কার্যত স্বাধীনতার পরে এই প্রথম এই এলাকায় ম্যানহোল পরিষ্কার করার কাজ চলছিল। সেখানেই তলিয়ে যান শ্রমিকরা। খবর পেয়েই প্রশাসন তৎপর হয়। স্থানীয়রাও সহযোগিতা করেন। সকলকেই তোলা সম্ভব হয়, হাসপাতালে পাঠানো হয়।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More