এত ‘আধুনিক’ ফোটোশ্যুট কেন ৬৯ বছর বয়সে! চরম ট্রোলড অভিনেত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আধুনিকতা থেকে উত্তর আধুনিকতার দিকে পা বাড়াচ্ছে সমাজ। সেই সমাজের বুকে দাঁড়িয়ে আরও একবার প্রশ্ন তুলতে হচ্ছে আমাদের! আমরা কি সত্যি আধুনিক হচ্ছি? মেধা, মননের সঙ্গে সঙ্গে কি আধুনিক হচ্ছে আমাদের মন, সমাজ? সেই প্রশ্ন আরও একবার ছুঁড়ে দিলেন প্রাক্তন বিগবস মালয়ালম প্রতিযোগী রজনী চ্যান্ডি।

অপরাধের মধ্যে তিনি যা করেছেন তা হল ৬৯ বয়সে ফটোশ্যুট করিয়েছেন। যা সোশ্যাল মিডিয়ার সালিশি সভার চোখে দণ্ডনীয় অপরাধ। এই জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় নির্মম ট্রোলিংয়ের শিকার হলেন রজনী চ্যান্ডি। গত সপ্তাহে ফেসবুকে ছবিগুলি পোস্ট করেন তিনি। তখনই লোকজন ঝাঁপিয়ে পড়েন তাঁর ওপর। শুরু হয় অকথ্য ভাষায় আক্রমণ, বসে যায় খাপ পঞ্চায়েত। নেটিজেনরা বলতে থাকেন এই বয়সে ধর্মকর্ম না করে কী করে তিনি শরীর দেখিয়ে ছবি তুললেন?

রজনীর দেবীর ছবিগুলো তুলে দেন ফটোগ্রাফার আথিরা জয়। এই ছবিগুলোই ঘটায় যত বিপত্তি, এগুলো নাকি অত্যধিক অশ্লীল! তাই অশ্লীলতার দায়ে অভিযুক্ত করা হয় বছর ৬৯-এর অভিনেত্রীকে। এখানে তাঁকে দেখা গেছে হাঁটু ঝুলের ডেনিমের পোশাক পরে। আবার সাদা টপ আর ছেঁড়া ফাটা জিন্সেও নজর কেড়েছেন তিনি। অনেকের চোখে অশ্লীল লেগেছে টপের মাঝখান দিয়ে দেখা যাওয়া ক্লিভেজেও।

আসলে তাঁকে সব সময় শাড়িতেই দেখা যায়, তাই এই উলটপুরাণে নেটিজেনরা বেজায় চটেছেন। খারাপ ভাষায় ট্রোলড হয়েছে তিনি! তাঁকে কেউ কেউ বলেছেন যৌনকর্মী আবার অনেকই সোশ্যাল মিডিয়াতে মৃত্যুকামনা করেছেন অভিনেত্রীর! যদিও ট্রোলিংয়ের এই কালচার লজ্জায় ফেলেছে সকল অনুভূতিপ্রবণ মানুষদের।

রজনী দেবী এই বিষয়ে জানান যে, এই ছবি দেখে তাঁকে অনেকে দেহ ব্যবসায়ী বলেছেন। একজন আবার বলেছেন, ঘরে বসে বাইবেল পড়ুন। এখন আপনার ঠাকুরদেবতা পূজা করা উচিত, শরীর দেখানো নয়। তবে এই প্রসঙ্গেই তিনি বলেন যে, “চল্লিশের কোটা পেরিয়ে গেলেই মহিলারা আর নিজেদের তেমন করে যত্ন করেন না ফলে, তাঁদের থেকে বয়সে বড় কেউ যদি সুন্দর থাকেন সেটাকে তাঁরা হয়তো ভালভাবে নিতে পারেন না! এর জন্য হয়তো খারাপভাবে আক্রমণ করেছেন।” তবে এত খারাপ, নোংরা ভাষাতে ট্রোলড হতে হবে সেটা তিনি বুঝতে পারেননি। আজকের দিনে দাঁড়িয়েও সমাজের এই চিন্তাভাবনা দেখে যথেষ্ট হতাশ হয়েছেন মালয়ালম অভিনেত্রী।

শুধু খারাপ কথা নয়, এই ছবির জন্য তিনি পেয়েছেন বহু মানুষের শুভেচ্ছাও। নেটিজেনদের একাংশ করেছেন তাঁর প্রশংসা। একজন বলেছেন, আপনার আত্মবিশ্বাস আর অ্যাটিটিউড ভাল লেগেছে, আর একজনের মন্তব্য, আপনি প্রমাণ করেছেন, বয়স একটা সংখ্যা ছাড়া কিছু নয়।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More