ছোট্ট হাতি পার্কে খেলে বেড়াচ্ছে তার নতুন বন্ধুর সঙ্গে, ভিডিও দেখে মুগ্ধ সবাই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বন্ধু বিনে সত্যিই প্রাণ বাঁচে না। আনন্দে, দুঃখে, হতাশায় পাশে একজন কাউকে তো চাই। কিন্তু বন্ধু যে সমবয়সী, সমগোত্রীয় হতে হবে এমনটা তো কেউ বলেনি। যে কেউ, যে কারোর বন্ধু হতে পারে। যেমন মাত্র দু’বছর বয়সের ছোট্ট বাচ্চা হাতিটার বন্ধু একটা কুকুর। পার্কের মধ্যে আপন মনে দুজনে ছোঁয়াছুঁয়ি খেলে বেড়াচ্ছে। সেই খেলার ভিডিওই ভাইরাল এখন সোশ্যাল মিডিয়ায়। মজাদার এই ভিডিও বারবার দেখছেন এখন সকলে।

পশু বলে কী নাম থাকতে নেই! ওয়াইন্ডি নাম ছোট্ট হাতিটার। আর কুকুরটার নাম মিলো। থাইল্যান্ডের এলিফ্যান্ট নেচার পার্কে দুজনে আপন মনে খেলে বেড়াত। সেই খেলার ভিডিও ২০১৫ সালে তুলে রেখেছিলেন ইন্ডিয়ান ফরেস্ট অফিসার সুশান্ত নন্দ। নতুন করে টুইটারে রিপোস্ট করার পরই ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। নিঃসন্দেহে এই খেলার দৃশ্য দেখে দেদার আনন্দ পাচ্ছেন নেটিজেনরা।

“ফ্রেন্ডস কাম ইন অল সাইজ অ্যান্ড সেপস…”। ভিডিওটা শেয়ার করার সময় সুশান্ত নন্দজি এই ক্যাপশনটি লেখেন। ‘ওয়ান গ্রিন প্ল্যানেট’-এর মতে ভিডিওটি দেখে বোঝা যাচ্ছে ওয়াইন্ডি প্রথমবার মিলোকে দেখেছে সেদিন। তাদের বন্ধুত্ব হতে কিন্তু বেশি সময় লাগেনি। পার্কে দেখা হওয়ার খানিক পরেই তারা একসঙ্গে খেলতে শুরু করে।

থাইল্যান্ডের এই এলিফ্যান্ট নেচার পার্কে সেই সমস্ত হাতির বাচ্চাদের রাখা হয়, যাদের মা হারিয়ে গেছে, বা আগে কোনও দুর্ঘটনায় আঘাত পেয়েছে। ২০১৩ সালে ওয়াইন্ডি জন্মায়। ওর মা আগে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়াত। যখন চারবছর বয়স ছিল তখন এক গাড়ির ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়। তারপর এখানে নিয়ে আসা হয়। পার্কের কর্তৃপক্ষরা জানিয়েছে মিলো হাতিদের সঙ্গে খেলতে ভীষণ পছন্দ করে। বলতে গেলে সবার সঙ্গেই ওর ভাব হয়ে যায়। ওয়াইন্ডির সঙ্গে ওকে খেলতে দেখলে পার্কের সবাই মজা পান।

Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More