ভোট পরবর্তী হিংসার ছবিতে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া, শাসকদলকে নিশানা করলেন শ্রীলেখা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একুশের মহারণে বাংলার আকাশে সবুজ আবির উড়িয়ে বঙ্গের মসনদে তৃতীয়বারের জন্য বসতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। গেরুয়া ঝড়কে থামিয়ে এবং বাম জোটকে একেবারে ধুয়ে মুছে দিয়েছে ঘাসফুল শিবির। কিন্তু ভোটযুদ্ধ থেমে গেলেও থামেনি ভোট পরবর্তী হিংসা। জেলায় জেলায় বিক্ষিপ্ত ঘটনা, উত্তেজনার ছবি ছড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই দাবি করছেন এই সংঘর্ষ ঘটিয়েছে বঙ্গের শাসকদল। আর এই দাবি যাঁরা করেছেন তাঁদের মধ্যে অন্যতম একজন হলেন বামসমর্থক অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই অভিনেত্রীর সোশ্যাল মিডিয়া পেজে উঠে এসেছে একের পর এক পোস্ট, যেখানে স্পষ্টত বামেদের ওপরে আক্রমণের কথা রয়েছে। অনেকেই বলছেন যে বামেদের শ্রমজীবী ক্যান্টিন, পার্টি অফিস, সিপিএমের প্রার্থী প্রতিকুর রহমানের বাড়ি ভাঙচুর হয়েছে। আবার কোথাও কোথাও চোপড়ার সিপিএমের পার্টি অফিস জ্বালিয়ে দেওয়ার ছবি ছড়িয়েছে। এবং অনেকেই এই সব অভিযোগের তীর ছুড়েছেন তৃণমূলের দিকে।

অন্যদিকে, আবার অনেকেই দাবি করছেন যে বিজেপি ভোটযুদ্ধে মুখ থুবড়ে পড়ার পরে বাংলাতে দাঙ্গা অশান্তি লাগানোর চেষ্টা করছে। সিপিএমের ঐশী ঘোষ নিজেও তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া পেজে জনসাধারণকে সাবধান করেছেন, যেন তাঁরা কোনও ভাবেই বিজেপি-আর এস এসের ফাঁদে পা না দেন। আর ভুয়ো খবর, গুজব যেন না ছড়ান।

একদিকে যেরকম দাবি উঠেছে যে প্রতিকুর রহমানের বাড়ি ভাঙা হয়েছে, আবার অনেকেই বলছেন সেই তথ্য ভুল। প্রতিকুর রহমানের বাড়ির পাশের দোকানটি ভাঙা হয়েছে। অন্যদিকে যে পার্টি অফিসের জ্বলন্ত ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে, সেটা ভুয়ো বলে অনেকেই দাবি করেছেন।

আর এরই মাঝে শ্রীলেখা একের পর এক পোস্ট তোপ ডাকছেন টলিপাড়ার তৃণমূলঘেষা শিল্পীদের বিরুদ্ধে। তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে লেখেন, “ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি শাসক দল দ্বারা নয়ন্ত্রিত সেটা সবাই জানেন। একদল বুদ্ধিজীবী যাঁরা রুদ্রনীলের মতো সাতে পাঁচে থাকেন না তাঁদের এই ফ্যাসিজমের খেলার ছবি চোখে পড়ছে না…তাঁরা এখন শাসকদলকে তৈলমর্দনে ব্যস্ত!”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More