রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ১০ হাজার ছুঁইছুই

দ্য ওয়াল ব্যুরো : আশঙ্কা সত্যি করে দৈনিক ১০ হাজার সংক্রমণের পথেই এগোচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জানা যায়, তার আগের ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৯৮১৯ জন। মারা গিয়েছেন ৪৬ জন। সুস্থ হয়েছেন ৪৮০৫ জন। দেশে কোভিড অতিমহামারী শুরু হওয়ার পরে রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৬ লক্ষ ৭৮ হাজার ১৭২ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৬৫২ জনের।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এদিন ৫০ হাজার ৪৪ জনের দেহের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। মঙ্গলবার কলকাতায় আক্রান্ত হয়েছেন ২২৩৪ জন। মারা গিয়েছেন ১৩ জন। শহরে এখন মোট অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ১০১২। কলকাতা বাদে উত্তর ২৪ পরগনাতেও সংক্রমণের হার যথেষ্ট বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ১৯০২ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মারা গিয়েছেন ১৫ জন। জেলায় এখন মোট অ্যাকটিভ কেস ৭৯০। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় এদিন আক্রান্ত হয়েছেন ৫৮১ জন। মারা গিয়েছেন একজন। সেখানে অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৩১৯। এছাড়া হাওড়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৭৭ জন। হুগলিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৯০ জন। পশ্চিম বর্ধমানে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৪৭ জন। বীরভূমে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৬২ জন। পূর্ব মেদিনীপুরে আক্রান্ত হয়েছেন ২৮৩ জন।

রাজ্যে কোভিড হাসপাতাল চালু হয়েছে ১০০ টি। বেসরকারি হাসপাতাল নেওয়া হয়েছে ৫৮ টি। সেফ হোম রয়েছে ২০০ টি। অ্যাম্বুলেন্স চালু হয়েছে ৪০০ টি। করোনার সেকেন্ড ওয়েভ ঠেকাতে আপাতত লকডাউনের পথে গিয়েছে দিল্লি ও মহারাষ্ট্রের মতো রাজ্য। কিন্তু সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে লকডাউন হবে না। তাঁর মতে, লকডাউন বা নাইট কার্ফু করে পরিস্থিতি সামলানো সম্ভব নয়। কিন্তু এর ফলে সাধারণ মানুষকে বিপদে পড়তে হয়।

দিল্লি, মহারাষ্ট্রের মতো কয়েকটি বিরোধী শাসিত রাজ্য ইতিমধ্যেই অভিযোগ করেছে, কেন্দ্রীয় সরকার পর্যাপ্ত পরিমাণে অক্সিজেন পাঠাচ্ছে না। তাদের সঙ্গে সুর মিলিয়েছে পশ্চিমবঙ্গও। সোমবার মালদহে এক সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যের সঙ্গে সহযোগিতা করছে না। অক্সিজেন, ওষুধ বা ভ্যাকসিন যথেষ্ট পরিমাণে পাঠাচ্ছে না।

সরকারি সূত্রে জানা যায়, রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কোভিশিল্ড ও কোভ্যাকসিন এসেছে ১ কোটি ২ লক্ষ ডোজ। তার মধ্যে কোভ্যাকসিনের সংখ্যা ১৩ লক্ষ ৩৭ হাজার। বর্তমানে রাজ্যের হাতে রয়েছে ১৪-১৫ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More