দীপিকা বরং আমাকে তার পরামর্শদাতা নিয়োগ করুক, জেএনইউ বিতর্কের পরে বললেন রামদেব

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কোনও বড় সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে দীপিকা দেশের আর্থ-সামাজিক নানা বিষয়ে আরও ভাল করে জানুক। সে যদি আমার মতো কাউকে উপদেষ্টা নিয়োগ করে, তাহলে ভাল হয়। আমি তাকে নানা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে ভাল করে বুঝিয়ে দিতে পারব। অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের জেএনইউতে যাওয়া প্রসঙ্গে এমনই মন্তব্য করলেন বাবা রামদেব।

জেএনইউতে বহিরাগতদের হামলার পরে সেখানে গিয়েছিলেন দীপিকা। ছাত্র সংসদের সভানেত্রী ঐশী ঘোষ ও অন্যান্য আক্রান্তের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়েছিলেন। এর পরে নেট দুনিয়ায় অনেকে অভিনেত্রীর সমালোচনা করেন। সোমবার ইনদওরে যোগগুরু রামদেব বলেন, “দীপিকা অভিনেত্রী হিসাবে কত উঁচুমানের তা ভিন্ন বিষয়। কিন্তু তাঁকে দেশের সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক বিষয়ে আরও জানতে হবে। সেই জ্ঞান অর্জন করলেই তিনি বড় সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন।”

এরপরেই তিনি বলেন, “আমি মনে করি দীপিকা পাড়ুকোনকে ঠিকঠাক পরামর্শ দেওয়ার জন্য স্বামী রামদেবের মতো কাউকে দরকার।” নাগরিকত্ব আইনকে এর আগেই জোরালো সমর্থন জানিয়েছেন যোগগুরু। তিনি বলেন, “যারা জানে না সিএএ পুরো কথাটা কী, তারা পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে কটূক্তি করছে।” পরে তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়ার জন্য আইন সংশোধন করা হয়নি। বরং ওই আইনে অনেকে নাগরিকত্ব পাবেন। তাও অনেকে ওই আইন নিয়ে আগুন জ্বালাচ্ছে।”

এনআরসি নিয়ে আন্দোলনেরও তীব্র বিরোধিতা করেন রামদেব। তিনি বলেন, “আন্দোলনকারীরা এমন স্লোগানও দিয়েছে, জিন্না ওয়ালি আজাদি। এই স্লোগান কোথা থেকে এল? এই ধরনের প্রতিবাদ দেশের ভাবমূর্তির ক্ষতি করছে।” রামদেবের দাবি, ভারতে দু’কোটি মানুষ বেআইনিভাবে বসবাস করছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More