চিন ভাঙতে এলে গুঁড়িয়ে দেব! নেপালে গিয়ে ঘোষণা করলেন ‘কল্পতরু’ শি জিনপিং

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চিনে ভাঙন ধরানোর কোনও চেষ্টা বরদাস্ত করা হবে না। নেপাল সফরে গিয়ে বার্তা দিলেন চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। বললেন, “কেউ যদি কোনও রকম ভাবে চিনকে ভাঙতে চায়, তাকে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।”

রবিবার ভারত সফর শেষ করে নেপালে যান শি। রাজধানী কাঠমাণ্ডুতে নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা অলির সঙ্গে বৈঠক করেন শি। তাতে প্রেসিডেন্ট শি বলেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও জীবিকা উন্নয়নে নেপালের ভূমিকাকে সমর্থন জানায় চিন। নেপালের সঙ্গে নীতিগত সমন্বয় জোরদার করতে, শিক্ষা, পর্যটন ও আঞ্চলিক বিনিময় জোরদার করতেও ইচ্ছুক চিন।

ওই বৈঠকে কেপি শর্মা অলি বলেন, নেপাল ও চিন সত্যিকারের বন্ধুদেশ এবং পরস্পরের সহযোগী। বাইরের পরিস্থিতির যে কোনও পরিবর্তন হোক না কেন, চিন নিয়ে নেপালের নীতি কখনও পরিবর্তন হবে না। বৈঠকের পরে দুই দেশের সহযোগিতামূলক দলিলপত্রও বিনিময় করেন দুই রাষ্ট্রনেতা।

দীর্ঘ ২৩ বছর পরে প্রথম কোনও চিনা রাষ্ট্রপ্রধানকে স্বাগত জানাল নেপাল।

প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সম্মানে কাঠমাণ্ডুতে নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যাদেবী ভান্ডারী একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। নেপাল সরকার ও নেপালের সাধারণ মানুষের পক্ষ থেকে জিনপিংকে উষ্ণ স্বাগত জানান ভান্ডারী।নেপালের সেনাবাহিনী কিছু কসরৎ দেখায়। ওই অনুষ্ঠানে, আগামী দিনে দুই দেশের মধ্য বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে বলে আশা প্রকাশ করেন দু’জনেই। এছাড়াও চিন এবং নেপালের মধ্যে স্বাস্থ্য, কৃষি, শিল্প, পর্যটন এবং আরও নানা বিষয় মিলিয়ে মোট ১৭টি চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।

নেপাল সরকার জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট শি তাদের দেশকে চিনের ‘রোড ইনিশিটিভ’ প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করতে চেয়েছেন।
এ বিষয়ে জিনপিং বলেন, “এই প্রকল্প কার্যকরী হলে অন্য দেশগুলি নেপালের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ আরও বাড়িয়ে তুলতে পারবে। বেজিং ও কাঠমাণ্ডুর বাণিজ্য আরও দৃঢ় হবে।”

এর পরে নেপালের বিরোধী দল নেপালি কংগ্রেসের নেতা শেন বাহাদুর দেউবা এবং নেপালি কমিউনিস্ট পার্টির সহকারী চেয়ারম্যান পুষ্প কমল দাহালের সঙ্গেও দেখা করেন শি জিনপিং।

তিব্বতের সঙ্গে সীমান্তের বিশাল অংশ জুড়ে রয়েছে নেপাল। তা ছাড়া নির্বাসিত প্রায় ২০ হাজার তিব্বতী মানুষ নেপালে বসবাস করেন। ৮৪ বছরের দলাই লামার সঙ্গে দেখা করতে প্রতি বছর আড়াই হাজার তিব্বতী নেপালে আসেন।

পড়ুন দ্য ওয়ালের পুজো সংখ্যার বিশেষ ভ্রমণ কাহিনি…

https://www.thewall.in/pujomagazine2019/%e0%a6%a6%e0%a7%81%e0%a6%9a%e0%a6%be%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a7%9f-%e0%a6%9a%e0%a7%87%e0%a6%aa%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%83%e0%a6%a5%e0%a6%bf%e0%a6%ac%e0%a7%80%e0%a6%b0-%e0%a6%9b%e0%a6%be/

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More