পাকিস্তানে প্রভাব বাড়ছে আর্মির, করোনা নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বও সেনাকর্তার হাতে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত কয়েকমাসে পাকিস্তানের প্রশাসনের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োগ করা হয়েছে কর্মরত ও অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্তাদের। তা থেকেই পর্যবেক্ষকদের ধারণা, সেদেশে ক্রমশ প্রভাব বাড়ছে সেনাবাহিনীর। একটি সূত্রের খবর, পাকিস্তানের অসামরিক বিমান চলাচল, বিদ্যুৎকেন্দ্র সহ এক ডজনের বেশি গুরুত্বপূর্ণ দফতরের দায়িত্বে এখন আছেন সেনা অফিসারেরা। এমনকি করোনা অতিমহামারীর মোকাবিলা করছে যে স্বাস্থ্য দফতর, তাও তুলে দেওয়া হয়েছে এক সেনাকর্তার হাতে। গত দু’মাসে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ পদে সেনা অফিসারদের নিয়োগ করা হয়েছে।

গত এক বছরে পাকিস্তানের অর্থনীতির বিকাশের গতি হয়েছে ধীর। জিনিসপত্রের দাম ব্যাপক বেড়েছে। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ঘনিষ্ঠ কয়েকজনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির দায়ে শুরু হয়েছে তদন্ত। ফলে জনপ্রিয়তা কমেছে ইমরানের। পর্যবেক্ষকদের মতে, এখন সেনাবাহিনীর সমর্থন পাওয়া জরুরি হয়ে উঠেছে ইমরান সরকারের কাছে। ২০১৮ সালে সরকার গড়ার সময় ‘নয়া পাকিস্তান’ গঠনের স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন ইমরান। কিন্তু বাস্তবে আগের মতোই দেশে সবচেয়ে শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান হিসাবে রয়ে গিয়েছে সেনাবাহিনী। স্বাধীন হওয়ার পরে গত সাত দশকের এক বড় সময় সেনাবাহিনী পাকিস্তানকে সরাসরি শাসন করেছে। কোনও নির্বাচিত সরকারও সেদেশে সেনাবাহিনীর সমর্থন ছাড়া সরকার চালাতে পারে না।

আটলান্টিক কাউন্সিলের নন রেসিডেন্ট সিনিয়ার ফেলো ওজাইর ইউনুস বলেন, “পাকিস্তানে একটার পর একটা গুরুত্বপূর্ণ পদে সেনাকর্তাদের নিয়োগ করা হচ্ছে। প্রশাসনিক নীতি নির্ধারণে অসামরিক ব্যক্তিদের ভূমিকা আগের চেয়ে কমেছে।” তাঁর আশঙ্কা, আগামী দিনেও পাকিস্তানের প্রশাসনে সেনাবাহিনীর ভূমিকা বাড়বে।

এর মধ্যে সরকারি সংবাদ মাধ্যমেও ঘন ঘন দেখা যাচ্ছে সেনাকর্তাদের। করোনা অতিমহামারী নিয়ে ব্রিফিং-এর সময় উপস্থিত থাকছেন ইউনিফর্ম পরা সেনা অফিসাররা। অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল আসিম সালিম বাজওয়াকে কিছুদিন আগে প্রধানমন্ত্রীর জনসংযোগ উপদেষ্টা হিসাবে নিয়োগ করা হয়েছে। একইসঙ্গে চায়না বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ প্রকল্প কার্যকর করার দায়িত্বেও আছেন তিনি। ওই প্রকল্পে পাকিস্তান বিনিয়োগ করেছে ৬ হাজার কোটি ডলার।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More