উত্তরপ্রদেশে করোনা মোকাবিলায় যোগীর প্রশংসা বিরোধীদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: উত্তরপ্রদেশে করোনা সংক্রমণ রুখতে এবার জরুরি পদক্ষেপ নিতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। গত রবিবার সমস্ত রাজনৈতিক দলকে একটি বৈঠকে আমন্ত্রণ করে করোনা মোকাবিলার বিষয়ে একযোগে আলোচনা করেন যোগী। যোগীর প্রস্তাবে সকলেই সাধুবাদ জানান এদিন।

বিএসপি নেতা লালজি বর্মা রবিবারের বৈঠকটি আয়োজন করার জন্য যোগীকে আন্তরিক ধন্যবাদ দেন। ইতিপূর্বে প্রথম দফার করোনা নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রেও প্রশংসনীয় পদক্ষেপ নিয়েছিলেন যোগী, সেকথা উল্লেখ করেন কংগ্রেসের প্রতিনিধি সুহেল আনসারি। তিনি আরও জানান, একযোগে কাজ করলে এবারের স্ট্রেনও নিয়ন্ত্রণ করা যাবে বলেই তাঁর বিশ্বাস।

এদিন বৈঠকে যোগী বলেন, করোনার দ্বিতীয় স্ট্রেনের দাপট অনেক বেশি জোরালো। ফেব্রুয়ারি মাস অবধি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখা গিয়েছে। কিন্তু এবার রাজনৈতিক দলগুলির সমবেত উদ্যোগ এবং সহযোগিতা ছাড়া রাজ্যবাসীকে সুরক্ষিত রাখা সম্ভব নয়। এই বক্তব্যে উপস্থিত সকলেই সহমত পোষণ করেন।

গতকাল উত্তরপ্রদেশে আরও ৪৮ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। সবমিলিয়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা এখন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯,০৮৫। সরকারি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ১২,৭৮৭ টি নতুন সংক্রমণের ঘটনা সহ এ রাজ্যে মোট ৬,৭৬,৭৩৯জন মানুষ বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত। এখনও অবধি সুস্থ হয়েছেন ৮৮৫৩ জন রোগী।

প্রধানমন্ত্রীর ‘টিকা উৎসব’ কর্মসূচি সফল করতে ইতিমধ্যেই রাজ্যে প্রচার চালিয়েছেন যোগী। গতকাল সর্বদলীয় বৈঠকের পর নতুন উদ্যমে সচেতনতার মাত্রা জোরদার করতে চলেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলায় রাজনৈতিক দলগুলির সমস্ত সদস্যদের কাছেই সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন যোগী।

লখনৌয়ের রাজভবনের এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন গভর্নর সহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রীরাও।সকলেই যোগীর উদ্যোগের ভুয়সী প্রশংসা করেছেন। বহুজন সমাজবাদী পার্টি এবং কংগ্রেসের প্রতিনিধিরাও মুখ্যমন্ত্রীর পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। যদিও আমন্ত্রণ জানানো সত্ত্বেও এদিন উপস্থিত থাকতে পারেন নি সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব এবং বিরোধী দলনেতা রাম গোবিন্দ চৌধুরী।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More