কেবিসির প্রশ্নে ‘আঘাত লেগেছে’ হিন্দু ভাবাবেগে, অমিতাভ বচ্চনের বিরুদ্ধে পুলিশি ব্যবস্থা চান বিজেপি বিধায়ক

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কৌন বনেগা ক্রোড়পতি গেম শো-য় অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন প্রশ্ন করেছিলেন, ১৯২৭ সালের ২৫ ডিসেম্বর সংবিধান প্রণেতা বি আর আম্বেদকর ও তাঁর অনুগামীরা কোন প্রাচীন গ্রন্থ পুড়িয়েছিলেন? ওই প্রশ্নের সঙ্গে চারটি অপশন দেওয়া হয়েছিল। বিষ্ণুপুরাণ, ভাগবৎ গীতা, ঋগবেদ এবং মনুস্মৃতি। সঠিক উত্তরদাতা পেতেন ৬ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা। ওই প্রশ্ন করার জন্য অমিতাভের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ জানালেন মহারাষ্ট্রের এক বিজেপি বিধায়ক। তাঁর বক্তব্য, অমিতাভ হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত দিয়েছেন।

লাতুর জেলার আউসা কেন্দ্রের বিধায়ক অভিমন্যু পওয়ার পুলিশ সুপার নিখিল পিঙলের কাছে আর্জি জানান, কৌন বনেগা ক্রোড়পতির ‘করমবীর স্পেশাল’ এপিসোডে ওই প্রশ্ন করার জন্য অমিতাভ বচ্চন ও সোনি এন্টারটেনমেন্ট টেলিভিশনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

বিধায়ক টুইট করে বলেন, “হিন্দুদের অপমান করার চেষ্টা হয়েছে। হিন্দু ও বৌদ্ধদের মধ্যে সদ্ভাব নষ্ট করার চেষ্টা হয়েছে।” কেবিসি-র ওই এপিসোডে হটসিটে ছিলেন সমাজকর্মী বেজওয়াদা উইলসন এবং অভিনেতা অনুপ সোনি। অমিতাভ বচ্চন নিজেই প্রশ্নের জবাবে বলেন, “১৯২৭ সালে ডক্টর আম্বেদকর মনুস্মৃতির কপি পুড়িয়েছিলেন। কারণ তিনি মনে করতেন, ওই প্রাচীন গ্রন্থে জাতপাত ও অস্পৃশ্যতাকে সমর্থন করা হয়েছে।”

বিধায়ক বলেন, যে চারটি গ্রন্থের নাম অপশন হিসাবে দেওয়া হয়েছিল, হিন্দুরা সেগুলি পবিত্র বলে মনে করে। পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে, হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার জন্যই ওই প্রশ্ন করা হয়েছিল।

মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশের ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত অভিমন্যু পওয়ার বলেন, কৌন বনেগা ক্রোড়পতির ওই প্রশ্নের মাধ্যমে বোঝাতে চাওয়া হয়েছে, হিন্দু ধর্মগ্রন্থগুলি পোড়ানো উচিত।

কেবিসির ওই প্রশ্ন নিয়ে আরও অনেকে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। অনেকের মতে, কেবিসি-র মাধ্যমে বামপন্থী প্রচার চালানো হচ্ছে। কেউ কেউ বলেছেন, এর মাধ্যমে হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত দেওয়া হয়েছে। চলচ্চিত্র পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রী টুইটারে মন্তব্য করেন, কেবিসি-কে ‘কমি’-রা হাইজ্যাক করে নিয়েছে। সরল শিশুদের ভুলভাল শেখানো হচ্ছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More