ভুল করে রাজস্থানে ঢুকে পড়া পাকিস্তানি কিশোরকে চকোলেট, খাবার খাইয়ে ফেরত পাঠাল মানবিক বিএসএফ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভুল করে ভারতের ভূখণ্ডে ঢুকে পড়া আট বছরের ছেলেকে মানবিকতার খাতিরে পাকিস্তানে ফেরত পাঠালেন সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) জওয়ানরা। শুক্রবার সন্ধ্যায় সীমান্ত পেরিয়ে এপারে চলে এসেছিল করিম নামে ওই নাবালক। বাড়ি পাকিস্তানের নগর পার্কার এলাকায়। গুজরাতের বারমেরে ভারতের মাটিতে পা দিয়ে সে বুঝতে পারে, এটা তার নিজের চেনা জায়গা নয়। লোকজনও আলাদা। কর্তব্যরত জওয়ানরা তাকে ফিরে যেতে বলেন। কিন্তু উর্দিধারী অচেনা লোকজনকে দেখে,  অপরিচিত পরিবেশে সে কান্নাকাটি শুরু করে দেয় বলে জানিয়েছেন বিএসএফের (গুজরাত ফ্রন্টিয়ার) ডেপুটি ইনস্পেক্টর জেনারেল এম এল গর্গ। তবে তার ভয় কাটাতে তাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে চকোলেট, খাবার দাবার, জল খেতে দিয়ে কান্না থামানোর চেষ্টা করেন জওয়ানরা। বিএসএফ কর্তৃপক্ষ সঙ্গে সঙ্গে সীমান্তের ওপার পাকিস্তানি রক্ষী বাহিনীর কর্তাদের সঙ্গে ছেলেটির ব্যাপারে আলোচনা করেন। ফ্ল্যাগ মিটিং হয় দুপক্ষের। তাকে ওঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। বিএসএফ বিবৃতি দিয়ে বলেছে, সৌহার্দ্যমূলক পদক্ষেপ হিসাবে পাক রেঞ্জারদের সঙ্গে ফ্ল্যাগ মিটিংয়ে পাকিস্তানি নাবালককে তুলে দেওয়া হয়েছে।

করিমের মতোই এপারের যুবক গেমামারাম মেঘওয়াল ভুল বুঝতে না পেরে গত ৪ নভেম্বর বারমের সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তানে চলে যায়। ১৯ বছরের ছেলেটি পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশের পুলিশের হাতে আটক রয়েছে বলে খবর। তাকে দেশে ফেরানোর প্রচেষ্টা চলছে। কিন্তু কোনও ইতিবাচক ফল মেলেনি এখনও। ভাগ্যদেবী সম্ভবতঃ পাকিস্তানি কিশোরের মতো গেমামারামের ক্ষেত্রে সুপ্রসন্ন হননি। বারমের জেলার বিজরিদ থানার সজ্জন কা পার গ্রামের এই বাসিন্দাকে ফেরাতে পাকিস্তানিরা সদর্থক পদক্ষেপ করেনি বলে অভিযোগ।

শুধু গেমামারামই নয়, রাজস্থান ও পাঞ্জাবের সীমান্তঘেঁষা এলাকা থেকে লোকজন প্রায়ই ভুল  করে সীমান্ত পেরিয়ে পাকিস্তান ঢুকে পড়ে। বুঝতে পারে না, ওটা বিদেশের মাটি। কখনও কখনও ধরা পড়ে তাদের মাসের পর মাস, এমনকী কোনও কোনও সময় বছরের পর বছর পাকিস্তানের জেলে পচতে হয়।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More