বর্ধমানে দিলীপ ঘোষের রোড-শোয়ে ইটবৃষ্টি, তৃণমূলের কার্যালয় ভাঙচুর

দ্য ওয়াল ব্যুরো, পূর্ব বর্ধমান: বর্ধমানে বিজেপি প্রার্থীর সন্দীপ নন্দীর সমর্থনে রোড-শো ছিল দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের। সেই রোড-শো ঘিরে ধুন্ধুমার হল দুই যুযুধান রাজনৈতিক দলের মধ্যে। রোড-শোকে ঘিরে ইটবৃষ্টি শুরু হয়। অন্য দিকে, ভাঙচুর করা হয় তৃণমূলের দলীয় কার্যলয় বলে অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার বিকেলে বর্ধমান দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সন্দীপ নন্দীর সমর্থনে দিলীপ ঘোষ রোড শো করছিলেন হাউস পাড়ায়। রোডশোর যখন শেষ হওয়ার দিকে সেই সময় উত্তেজনা ছড়ায় রসিকপুরে। দিলীপ ঘোষের কনভয় তখন সবে মাত্র সেখান থেকে পেরিয়ে ছিল।

তার পরেই হঠাৎ রসিকপুরে তৃণমূলের একটি ব্যানার ছিঁড়ে দেওয়া হয়। গলির থেকে ইট পাটকেল ছোড়া হয়। মুহূর্তের মধ্যে দু’পক্ষের সংঘর্ষ বেঁধে যায়। চতুর্দিক থেকে ইট পাটকেল পড়তে শুরু করে। পুলিশের সামনেই রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় রসিকপুর। এরমধ্যে তৃণমূলের একটি কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুরের করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে।

সেন্ট্রাল ফোর্স ও পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে অবশ্য গোটা এলাকায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এলাকার বাসিন্দারা ভয়ে আতঙ্কে দরজা জানালা বন্ধ করে দেন।

রাজ্য বিজেপি দিলীপ ঘোষ বলেন, ” এখানে এক সময়ে সিপিএম রাজ করেছে। এখন তৃণমূল চাইছে রাজ করতে। কিন্তু এখানকার মানুষ তা সহ্য করবে না। এর আগে সিপিএম মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার কেড়ে নিতে চেয়েছিল। এবার তৃণমূলও তাই করতে চাইছে।” এর পরে তিনি কেন্দ্রীয়বাহিনীর নিরাপত্তার কথা মনে করিয়ে দিয়ে নির্ভয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।

বিজেপি প্রার্থী সন্দীপ নন্দী বলেন, ” এদিন আমাদের নেতা দিলীপ ঘোষের শান্তিপূর্ণ রোড শো হচ্ছিল। কিন্তু তৃণমূলকংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা রোড-শোর শেষে হামলা করল। মুহু মুহু ইঁট পাটকেল ছুঁড়লো। এইভাবে বিজেপি আটকানো যাবে না।”

অন্যদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা আব্দুল রবের অভিযোগ, ” বিজেপি কর্মী সমর্থকরা রোড-শো থেকে হামলা চালায়। তৃণমূলের পোস্টার ছিঁড়ে দেওয়া হয়। তারপর আমাদের দলীয় কার্যালয়ে হামলা করা হয়। সেখানে ভাঙচুর চালানো হয়। সব কিছুই পুলিশের সামনে হয়েছে।”

এরপর প্রতিবাদে রাস্তায় নামে তৃণমূল। তারা রাস্তার টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখায়। পুলিশ ও কেন্দ্রীয় বাহিনী যৌথভাবে গিয়ে দু’পক্ষের লোকজনকে হটিয়ে দেয়।  জেলা তৃণমূলের মুখপাত্র প্রসেনজিৎ দাস বলেন, ”পরিকল্পনা করে বিজেপি আজ শহরে অশান্তি ছড়ালো।”

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More