বোর্ডের পরীক্ষার আগে ডাক্তারদের পরামর্শ নেবে সিবিএসই, খোলা হবে ২০০০ নতুন টেস্ট সেন্টার

দ্য ওয়াল ব্যুরো : সিবিএসই-র পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আগামী ৪ মে। পরীক্ষা যাতে নির্বিঘ্নে সম্পন্ন হয়, সেজন্য ডাক্তারদের পরামর্শ নিচ্ছে বোর্ড। দেশ জুড়ে কোভিডের দ্বিতীয় ওয়েভের মুখে ছাত্র ও অভিভাবকদের একাংশ দাবি করে, পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়া হোক। কয়েকটি রাজনৈতিক দলও একই দাবি তোলে। গত সপ্তাহের শেষে কংগ্রেস ও শিবসেনা শিক্ষামন্ত্রকের কাছে দাবি জানায়, বর্তমান পরিস্থিতিতে বোর্ডের পরীক্ষা স্থগিত রাখা হোক। কিন্তু সিবিএসই জানিয়ে দিয়েছে, সবরকম সতর্কতা মেনেই পরীক্ষা নেওয়া হবে। পরীক্ষার সূচি বদল হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

সিবিএসই-র এক অফিসার বলেন, পরীক্ষা কেন্দ্রের সংখ্যা পাঁচ হাজার থেকে বাড়িয়ে সাত হাজার করা হয়েছে। ছাত্রছাত্রীরা যাতে দূরত্ব বজায় রেখে বসতে পারে, সেজন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরীক্ষার সময় কোভিড প্রোটোকল যথাযথভাবে মেনে চলা হবে। আমরা সরকারের বিভিন্ন দফতরের সঙ্গে যোগযোগ রাখছি। পরীক্ষা যাতে নির্বিঘ্নে চলে, সেজন্য সবরকম ব্যবস্থাই করা হচ্ছে।

পরে তিনি বলেন, “আপনারা যদি টাইম টেবিল দেখেন, তাহলে বুঝতে পারবেন, দু’টি পরীক্ষার মাঝে যথেষ্ট সময় দেওয়া হয়েছে। ছাত্রছাত্রীদের ওপরে যাতে বেশি চাপ না পড়ে, সেজন্য ওই ব্যবস্থা করা হয়েছে।” গত শনিবার এক ওয়েবিনারে এক্সামিনেশন কন্ট্রোলার সন্যম ভরদ্বাজ বলেন, “আমি পরীক্ষার্থীদের বাবা-মায়েদের বলব, করোনা পরিস্থিতির দিকে নজর রাখুন। সেই সঙ্গে ছেলেমেয়েদের পরীক্ষার প্রস্তুতির ওপরেও নজর দিন।”

শিক্ষক ও ইনভিজিলেটরদের উদ্দেশে ভরদ্বাজ আবেদন জানান, যাঁদের বয়স ৪৫-এর ওপরে, তাঁরা যেন ভ্যাকসিন নেন। অভিভাবকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, এই পরিস্থিতিতে ছেলেমেয়েদের পরীক্ষা কেন্দ্রে পাঠানো যে কঠিন তা তিনি বোঝেন। কিন্তু তিনি সকলের কাছে আবেদন জানাচ্ছেন, তাঁরা যেন বোর্ডের সঙ্গে সহযোগিতা করেন। ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে তিনি আহ্বান জানান, তারা যেন পরীক্ষার প্রস্তুতিতে মনোযোগ দেয়। কোনও গুজবে কান না দেয়।

ইতিমধ্যেই প্রাকটিক্যাল পরীক্ষার ব্যাপারে কিছু ছাড় দিয়েছে বোর্ড। গত ১ এপ্রিল বোর্ডের সার্কুলারে বলা হয়েছে, কোভিড পজিটিভ হওয়ার কারণে কোনও পরীক্ষার্থী যদি প্রাকটিক্যাল পরীক্ষা না দিতে পারে, তার স্কুল পরে তার প্রাকটিক্যাল পরীক্ষা নিতে পারবে। সিবিএসই-র আঞ্চলিক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে, সেই পরীক্ষা নিতে হবে ১১ জুনের মধ্যে।

করোনা পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে এবার পরীক্ষার সিলেবাস কমিয়ে দিয়েছে সিবিএসই। এছাড়া ওয়েব সাইটে স্যাম্পেল কোশেন পেপার আপলোড করা হয়েছে। এছাড়া ছাত্রছাত্রীরা ইচ্ছা করলে পরে কোনও বিষয়ে যাতে নম্বর বাড়াতে পারে, তার সুযোগও দেওয়া হচ্ছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More