দেশে ১৪৫ টি কোভিড হটস্পট জেলা চিহ্নিত করল কেন্দ্র

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত তিন সপ্তাহে দেশের ১৪৫ টি জেলায় কোভিড ১৯ সংক্রমণ হয়েছে ব্যাপক হারে। সেই জেলাগুলি হয়ে উঠেছে করোনার হটস্পট। গত বৃহস্পতিবার একথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রতিটি রাজ্য প্রশাসনকে সতর্ক করে বলা হয়েছে, অবিলম্বে ওই জেলাগুলিতে সংক্রমণ রোধের ব্যবস্থা করতে হবে। না হলে সেগুলি হয়ে উঠবে করোনার এপিসেন্টার।

মন্ত্রিসভার সচিব রাজীব গৌবা প্রতিটি রাজ্যের প্রতিনিধিকে জানিয়ে দিয়েছেন, সামগ্রিকভাবে পূর্ব ভারত দেশে কোভিড হটস্পট হয়ে উঠতে পারে। কারণ করোনায় যে রাজ্যগুলি সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত সেখান থেকে পরিযায়ী শ্রমিকরা পূর্ব ভারতে ফিরেছেন। মন্ত্রিসভার সচিব বলেন, পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, ওড়িশা সহ পূর্ব ভারতের ১২ টি রাজ্য আগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ঠিকমতো জানায়নি। ২৫ মে-র আগের তিন সপ্তাহে ওই রাজ্যগুলিতে সংক্রমণ ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে। আগে ত্রিপুরা ও মণিপুরের মতো রাজ্যে আগে সংক্রমণের হার খুবই কম ছিল। এখন সেখানেও করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারতে করোনা রোগীর সংখ্যা ছিল ১ লক্ষ ৬৫ হাজার। তার মধ্যে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, গুজরাত, দিল্লি, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ ও অন্ধ্রপ্রদেশের মতো রাজ্যেই সংক্রমণের হার সবচেয়ে বেশি। গত ১৫ দিনে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে দ্রুত হারে। ১৩ মে অবধি দেশে ৭৫ হাজার মানুষ ওই রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। গত কয়েকদিনে বিহার, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশার মতো ছোট রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

রাজীব গৌবা বলেন, “মহারাষ্ট্র, গুজরাত, কর্নাটক ও অন্ধ্রপ্রদেশের মতো যে রাজ্যগুলি কোভিডের হটস্পট সেখান থেকে অনেকে পূর্ব ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে ফিরেছেন। তাই সেখানে রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।” পরে তিনি বলেন, “পরিযায়ী শ্রমিকদের সংখ্যা ছিল বিপুল। সবাইকে রেল স্টেশনে বা বাসে ঠিকমতো পরীক্ষা করা হয়নি। তাই এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে রোগ ছড়িয়ে পড়েছে।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More