হাবরায় কোভিডে মৃত মায়ের দেহ পিপিই কিট পরে তুললেন মেয়েরা, এল না কেউ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত এক মাসে কোভিডে মৃতের দেহ দীর্ঘক্ষণ পড়ে থাকার অনেকগুলি ঘটনা সামনে এসেছে। তারপর নবান্ন থেকে এ নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনের উদ্দেশে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু কোথায় কী! ফের দীর্ঘক্ষণ দেহ পড়ে থাকার ঘটনা ঘটল উত্তর চব্বিশ পরগনার হাবরায়। শেষমেশ মৃতার দুই মেয়ে পিপিই কিট পরে মায়ের দেহ তোলেন শববাহী গাড়িতে।

হাবরা পুরসভা লাগোয়া কুমড়ো কাশিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বেলের মাঠ এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে রবিবার। মৃতা স্মৃতি গায়েন (৫৫)-এর দুই মেয়ে জানিয়েছেন, কয়েক দিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন তিনি। গতকাল তাঁর কোভিড টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। রবিবার সকাল ৭টা নাগাদ মৃত্যু হয় স্মৃতিদেবীর। এর পর পঞ্চায়েতে খবর দেন মেয়েরা। অভিযোগ সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত দেখা মেলেনি কারও।

এই গোটা দিন দেহ আগলে মেয়েরা বসেছিলেন। সন্ধ্যা ৭টার পর আসে শববাহী গাড়ি। মৃতার মেয়েদের অভিযোগ সেই গাড়ির চালক দেহ তুলতে অস্বীকার করেন। তারপর তিনিই দুটি পিপিই কিট নিয়ে আসেন। তা পরেই মায়ের দেহ গাড়িতে তোলেন দুই মেয়ে।

স্মৃতিদেবীর মেয়েদের আরও অভিযোগ, শববাহী গাড়ির চালক দেহ নিয়ে যাওয়ার জন্য টাকাও চান। স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান বলেছেন, রবিবার বলে কেউ ডিউটিতে ছিল না। দীর্ঘক্ষণ দেহ পড়ে থাকার বিষয়টি তিনি স্বীকার করে নেন। তবে গাড়ির চালক কেন টাকা নিয়েছে তা খতিয়ে দেখা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More