প্রার্থী বদলের দাবি, দলীয় কার্যালয় ভাঙচুর করলেন কংগ্রেস কর্মীরাই !

দ্য ওয়াল ব্যুরো বীরভূম: মুরারইয়ের কংগ্রেস হিসাবে প্রার্থী আশিফ ইকবালের নাম ঘোষণা করেছে। কিন্তু তাতে নাখুশ কংগ্রেস কর্মীদের একাংশ। তাঁরা প্রার্থী বদলের দাবি তুলেছেন। কিন্তু তাতে দল কর্ণপাত না করায়, কার্যালয় ভাঙচুর করলেন কংগ্রেস কর্মীরাই। শনিবার দুপুরে বিক্ষোভ চলছে মুরারই ২ ব্লকের পাইকরের কংগ্রেস কার্যালয়ের সামনে। এরপরে সেখানে রাগে তেতে উঠেন কর্মীরা। ভাঙচুর করে কার্যালয়। এমনকি দলনেতা অধীর চৌধুরির ফটো খুলে ফেলেন।

আশিফ ইকবাল ওরফে রাসেলের নাম ঘোষণা করলেও এলাকার কর্মীরা তাঁকে মানতে চাইছেন না। তাঁদের দাবি, প্রাক্তন বিধায়ক তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোতাহার হোসেনের ছেলে মোশারফ হোসেনকেই প্রার্থী করা হোক। কংগ্রেসের জেলা কমিটি থেকে তাঁর নামই প্রস্তাব করা হয়েছিল। কিন্তু ভোটের আগে দল বদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মোশারফ হোসেন। হঠাৎ করেই তিনি তৃণমূলের প্রার্থী হওয়ার কথা ঘোষণা করেন। দেওয়াল লিখন অনেক জায়গায় হয়ে গেছে। তবুও আশিফ ইকবাল ও মোশাররফ হোসেনকে নিয়ে কংগ্রেসের কর্মীদের দ্বন্দ্ব এখনও মেটেনি।

আবার অনেকে ওই এলাকার বিশিষ্ট সমাজসেবী তথা প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা আলী খানের নাম প্রস্তাব করেছেন প্রার্থী হিসেবে। কিন্তু আলী খান বর্তমানে তৃণমূলের সদস্য। এরই জেরে মুরারই বিধানসভা কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থী নিয়ে কর্মীরা বিক্ষোভ শুরু করেন। দিন কয়েক আগে মুরারইয়ের কংগ্রেস কার্যালয়ে তালা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। আজ ফের পাইকর ব্লক কার্যালয়ে ভাঙচুর করেন এলাকার কংগ্রেস কর্মীরা। সেখানে প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোতাহার হোসেন এবং অধীর রঞ্জন চৌধুরীর ছবি খুলে ফেলে দেওয়া হয়। ভাঙচুর করা হয়েছে চেয়ার টেবিল এবং আসবাবপত্র। এলাকার কংগ্রেস কর্মীদের জোরালো দাবি, আর মাত্র কয়েকদিন পরেই ভোট। দ্রুত তাদের মনোনীত কংগ্রেস প্রার্থী নাম ঘোষণা করতে হবে। তবে বিষয়টি নিয়ে কোনও মন্তব্য করেনি কংগ্রেস নেতৃত্ব।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More