মেনে চলুন এই টিপস, দুবেলা জল খেতে ভুলবেন না আর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কথায় বলে ‘জলের অপর নাম জীবন।’ মানবদেহ প্রায় ৬০ শতাংশই জল দিয়ে গঠিত। শরীরে থাকা তরলগুলো হজম, শোষণ, রক্ত সঞ্চালন, লালারস, পুষ্টি সরবরাহ আর শরীরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়াও, জল ক্যালোরি নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে, পেশিকে শক্তিশালী করে, ত্বককে সুন্দর করে তোলে। সুতরাং, শরীরের প্রতিটি ক্রিয়াকলাপের পেছনে জলের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।

ইউএস ন্যাশনাল একাডেমি অফ সায়েন্স, ইঞ্জিনিয়ারিং, মেডিসেনের মতে পুরুষ আর মহিলাদের জন্য পর্যাপ্ত জলের পরিমাণ হল যথাক্রমে ৩.৭ লিটার এবং ২.৭ লিটার।

প্রতিদিন বেশি করে জল খাওয়ার কয়েকটি উপায় দেওয়া রইল।

১. নিয়মিত ওয়ার্কআউটের পরে নির্দিষ্ট পরিমাণে, এক বোতল জল খাওয়া দরকার।

২. ফ্লাস্কে, জগের জলে আঙুর, স্ট্রবেরি, লেবু, শসা, আদা, তুলসী, পুদিনা, ল্যাভেন্ডার চাইলে আরও কিছু যোগ করতে পারেন। যা জলে একটা স্বাদ নিয়ে আসবে অথচ শরীরের জন্য উপকারীও হবে। এছাড়াও বিভিন্ন কম্বো যেমন শসা-পুদিনা, তুলসী-লেবুর রস দিয়েও খেতে পারেন।

৩. হাতের কাছেই জলের বোতল, জগ বা গ্লাস রাখুন। কাজের ফাঁকে ফাঁকে জল যাতে খেতে পারেন সে দিকে নজর রাখতে পারবেন তাহলে। রান্নাঘরে, বিছানার পাশে, টেবিলে জলের গ্লাস দেখলে জল খাওয়ার কথা মনেও পড়বে, আর আপনার জল খাওয়ার অভ্যেসও তৈরি হবে।

৪. আপনার ডায়েটে এমন সবজি বা ফল রাখা দরকার যেগুলো শরীরে জলের ভারসাম্য রক্ষা করে। যেমন শসা (৯৬% জল), তরমুজ(৯২% জল), আঙুর (৯১% জল) খেতে পারেন।

৫. প্রতিবার বাথরুম ব্রেকের পর এক গ্লাস করে জল খাওয়া খুবই দরকার।

৬. অতিরিক্ত মিষ্টি কোনও জুস খাওয়ার সময় সেটার মধ্যে লেবু বা বরফ যোগ করতে পারেন। এটা যেমন জলের পরিমাণকে বাড়ায় তেমনই অতিরিক্ত মিষ্টিও হতে দেয় না পানীয়কে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More