ভালো আছেন অমিতাভ-অভিষেক, ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছেন, জানাল নানাবতী হাসপাতাল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন অমিতাভ বচ্চন এবং অভিষেক। মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন দু’জনেই। শনিবার রাতে তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রবিবারই নানাবতী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিল স্থিতিশীল রয়েছেন অমিতাভ। মৃদু উপসর্গ ছাড়া কোনও সমস্যা নেই অভিনেতার।

সোমবার সংবাদসংস্থা পিটিআই সূত্রে জানা গিয়েছে যে নানাবতী হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে বাবা-ছেলে দু’জনেই ভাল রয়েছেন। তাঁদের জটিল কোনও চিকিৎসারও প্রয়োজন হয়নি। বরং বিগ বি এবং জুনিয়র বচ্চনের সামান্য কিছু উপসর্গ ছিল। তবে ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন দু’জনেই।

 

শনিবার রাতে টুইট করে অমিতাভ বচ্চন জানিয়েছিলেন, করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। ভর্তি হয়েছেন নানাবতী হাসপাতালে। বিগ বি বলেন পরিবারের বাকি সদস্য এবং কর্মীদের কোভিড টেস্ট করানো হচ্ছে। পাশাপাশি তিনি এও বলেন যে গত দশ দিন যাঁরা তাঁর সংস্পর্শে এসেছেন তাঁরা যেন অতি অবশ্যই টেস্ট করিয়ে নেন।

এর কিছুক্ষণ পরেই টুইট করেন অভিষেক। জুনিয়র বচ্চন জানান, বাবার মতো তিনিও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে। তাঁদের দু’জনেরই মাইল্ড সিম্পটমস অর্থাৎ সামান্য উপসর্গ রয়েছে বলেও জানান অভিষেক। সেই সঙ্গে সকলের উদ্দেশে বলেন কেউ যেন অযথা আতঙ্কিত না হয়ে পড়েন।

অমিতাভ এবং অভিষেক করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পরই বচ্চন পরিবারের বাকি সদস্য কোভিড টেস্ট করানো হয়। ঐশ্বর্য রাই এবং আরাধ্যারও কোভিড রিপোর্ট এসেছে পজিটিভ। হোম আইসোলেশনে রয়েছেন তাঁরা। তবে জয়া বচ্চনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

অন্যদিকে বচ্চনদের সংস্পর্শে আসা মোট ৫৪ জন কর্মীর সোয়াব টেস্ট করানো হয়। এঁদের মধ্যে ২৮ জনকে ইতিমধ্যেই কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। বাকি ছিলেন ২৬ জন। যাঁরা সকলেই বচ্চনদের ‘জলসা’ বাংলোয় কর্মরত। অমিতাভ-অভিষেকের সরাসরি সংস্পর্শে থাকায় এঁদের কোভিড টেস্টের রিপোর্ট পজিটিভ আসার প্রবল সম্ভাবনা ছিল। তবে এই ২৬ জন কর্মীর রিপোর্টই নেগেটিভ এসেছে। গতকাল এবং আজ দু’দিন পরপর সোয়াব টেস্ট হয়েছে এই ২৬ জনের। দু’দিনই রিপোর্ট এসেছে নেগেটিভ। তবে সুরক্ষার খাতিরে আপাতত ২ সপ্তাহ নিয়ম মেনে কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন এই ২৬ জন কর্মী।

আপাতত বচ্চনদের চারটি বাংলো সিল করে দিয়েছে বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপাল করপোরেশন। বাংলো সংলগ্ন এলাকা কন্টেইনমেন্ট জোনের আওতায় আনা হয়েছে। বচ্চনদের বাংলো এবং সংলগ্ন এলাকা স্যানিটাইজেশনের কাজও শুরু করেছে বিএমসি কর্তৃপক্ষ।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More