মাইনাস ৩ ডিগ্রিতেও অমিতাভের এনার্জি তুঙ্গে, বাহারি সানগ্লাস এঁটে শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত বিগ বি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মাইনাস ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রাতেও ঠান্ডায় কাঁপছেন না অমিতাভ বচ্চন। বরং জমিয়ে শ্যুটিং করছেন বিগ বি। টুইট করে ভক্তদের জানিয়েওছেন সেকথা। অয়ন মুখোপাধ্যায়ের আগামী ছবি ‘ব্রহ্মাস্ত্র’-র শ্যুটিংয়ে আপাতত ব্যস্ত সিনিয়র বচ্চন। কদিন আগেই গিয়েছিলেন মানালিতে। আর শ্যুটিং ফ্লোরে পা দিলে বিগ বি যে এখনও বলিউডের তরুণ ব্রিগেডকেও হার মানাবেন একথা প্রায় সকলেরই জানা। অভিনয় হোক বা এনার্জি, ক্যামেরার সামনে ৭৭-এও বিগ বি আউটস্ট্যান্ডিং।

সেকথা আরও একবার জানালেন অমিতাভ নিজেই। তবে মাইনাস ৩ ডিগ্রি তাপমাত্রায় শ্যুটিং করার পাশাপাশি নজর কেড়েছে বিগ বি চোখের সানগ্লাস। বেগুনি ফ্রেমের ডিজিটাল সানগ্লাসে ছিল লাল এবং কমলা রঙয়ের ছোঁয়া। অমিতাভের নয়া অবতার দেখে ভক্তরা বলছেন, আগুন রঙা এই সানগ্লাসে দারুণ মানিয়েছে বিগ বি-কে। অমিতাভের ছবিতে ঝলক মিলেছে রণবীর কাপুরেরও। কদিন আগেই ‘ব্রহ্মাস্ত্র’-র শ্যুটিংয়ের জন্য মানালি গিয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন, রণবীর কাপুর এবং আলিয়া ভাট। তবে সম্প্রতি মুম্বই ফিরে এসেছেন আলিয়া।

কিছুদিন আগেই হাসপাতাল থেকে ফিরেছেন বিগ বি। তারপরে যোগ দিয়েছেন ‘ব্রহ্মাস্ত্র’-এর শ্যুটিংয়ে। এই শ্যুটিংয়ের জন্য গাড়িতে করে সেই মানালি অবধি যেতে হয়েছে তাঁকে। মানালি পৌঁছে নিজের ব্লগে সেখানকার সৌন্দর্যের বর্ণনা দেন অমিতাভ। ব্লগে তিনি লেখেন, “চারদিকে সতেজতার গন্ধ….. শীতের আমেজ….. পরিষ্কার-সুন্দর বাতাস…. এখন ভোর ৫টা বাজছে…. গোটা রাস্তাটা জুড়েই আনন্দে এলাম…. ছোট শহরের সহজ আপ্যায়ণ মুগ্ধ করেছে…. আমরা তাঁদের মতো সরল ও সৎ কখনওই হতে পারব না।” তারপরেই নিজের ব্লগে অমিতাভ লেখেন, মানালি পর্যন্ত যাত্রার পরেই নাকি তাঁকে শরীর সিগন্যাল পাঠিয়েছে যে আর বেশিদিন নেই তাঁর কাছে। তিনি বলেন, “আমার এবার অবসর নেওয়ার সময় হয়েছে। মাথা অন্য কথা বলছে, কিন্তু শরীর অন্য কথা বলছে। এটা একটা বার্তা।”

আরও পড়ুন- অবসর নিতে চান অমিতাভ, নিজেই জানালেন শাহেনশাহ

৭৭ বছর বয়সে এসে এই প্রথমবার অমিতাভের কথা শুনে মনে হয়েছিল কোথাও যেন এনার্জির ঘাটতি হচ্ছে। তাহলে কি এবার অবসর নেবেন বিগ বি, এমন জল্পনাই শোনা যাচ্ছিল বি-টাউনের অন্দরমহলে। তব এইসবের মধ্যেই অমিতাভের নতুন টুইট সাফ বুঝিয়ে দিল ক্যামেরার সামনে আজও তিনি একশ তে একশ। এনার্জিতে ভরপুর। ৭৭-এও তিনি বলিউডের ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো-ম্যান’।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More