বলিউডেও করোনা ভয়, নিজেকে কী ভাবে ব্যস্ত রাখছেন দীপিকা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনাভাইরাসের জেরে বলিউডে বন্ধ হয়েছে শ্যুটিং। সব সিনেমা-সিরিয়াল এবং ওয়েব সিরিজের শ্যুটিং বন্ধ থাকবে আগামী ১৯ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত। বেশ কিছু সিনেমা রিলিজের তারিখও পিছিয়ে দিয়েছেন পরিচালকরা।

শ্যুটিংয়ের ব্যস্ততা তাই এখন নেই দীপিকা পাড়ুকোনের। সম্প্রতি প্যারিস ফ্যাশন উইকে যাওয়ার কথা ছিল অভিনেত্রীর। করোনা আতঙ্কের জেরে সেটাও বাতিল হয়েছে। বাড়ি বসে এখন তাই আলমারি পরিষ্কার করছেন দীপিকা। ইনস্টাগ্রামে নিজেই একথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী। শেয়ার করেছেন একটি ছবি যেখানে দেখা গিয়েছে এক জায়গায় টাল করে জড়ো করা হয়েছে একগাদা জামাকাপড়।

দীপিকার কথায় দেশ জুড়ে যখন কোভিড ১৯-এর আতঙ্ক চলছে তখন এটাই নিজেকে ব্যস্ত রাখার সেরা উপায়। তাই ওয়ার্ডরোব সাফাই অভিযানে নেমেছেন অভিনেত্রী। নেটিজেনদের অনেকেই দীপিকার এমন ধারণাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন নেটিজেনদের অনেকেই। বর্ষীয়ান অভিনেত্রী সোনি রাজদানও দীপিকার এই প্রস্তাবকে ‘গ্রেট আইডিয়া’ বলেছেন।

বিশ্ব জুড়ে ভয়াল আকার নিয়েছে নোভেল করোনাভাইরাস। মৃতের সংখ্যা পেরিয়েছে ৬ হাজার। চিনের পাশাপাশি করোনাভাইরাস মহামারীর আকার নিয়েছে ইতালি এবং ইরানে। ১৩৫টি দেশ রীতিমতো ধুঁকছে এই করোনাভাইরাসের সংক্রমণের জেরে। ভারতেও থাবা বসিয়েছে করোনা। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন মহারাষ্ট্রে। এখনও পর্যন্ত সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৩২। দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১১০। ইতিমধ্যেই মৃত্যুও হয়েছে ২ জনের। একজন কর্নাটকের অন্যজন দিল্লির বাসিন্দা। কর্নাটকের মৃত ব্যক্তির মেয়ের শরীরেও মিলেছে সংক্রমণের চিহ্ন।

বলিউডেও ছড়িয়েছে করোনা আতঙ্ক। মাস্ক পরে ঘুরতে দেখা গিয়েছে টিনসেল টাউনের অভিনেতাদের। ২৪ মার্চ রিলিজ হওয়ার কথা ছিল রোহিত শেট্টির ছবি ‘সূর্যবংশী’। তবে ছবির রিলিজ পিছিয়ে দিয়েছেন পরিচালক। করোনা আতঙ্কের মাঝেই রিলিজ হয়েছিল ইরফান খানের কামব্যাক মুভি ‘আংরেজি মিডিয়াম’। তারপরেই একে একে বিভিন্ন রাজ্য সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিনেমা হল বন্ধ রাখার। তার জেরেই ‘আংরেজি মিডিয়াম’ নতুন করে রিলিজ হবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক হোমি আদাজানিয়া। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই ছবি ফের রিলিজ হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More