“তাঁদেরও তো দিওয়ালি আসছে”! লক্ষ লক্ষ মানুষের চোখে জল আনল ফেসবুকের নতুন ভিডিও

দ্য ওয়াল ব্যুরো:  দিওয়ালির ঠিক আগে আগেই ফেসবুক ইন্ডিয়ার পেজে একটি নতুন ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে। করোনা আবহে গত সাতমাসে অনেকের চাকরি গেছে। তাঁদের কথা মাথায় রেখে আর এই কঠিন সময়ে ফেসবুকের ভূমিকা কেমন, সেটা নিয়েই একটি শর্ট ফিল্ম বানানো হয়েছে। পোস্ট করার কিছুক্ষণের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায় সেই ভিডিও। দুদিনের মধ্যে ৩৮ মিলিয়নেরও বেশি ভিউ ছাড়িয়ে গেছে ভিডিওটির।

করোনা ভাইরাসের কারণে মার্চ মাস থেকে যে লকডাউন শুরু হয়, তার ফলে দেশে, বিদেশে বিভিন্ন কোম্পানি থেকে বহু কর্মীর চাকরি চলে যায়। ছোট ছোট ব্যবসায়ীদের অবস্থা তো খুবই খারাপ। তবে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দিন আনি দিন খাই পরিবারগুলো। চাকরি খুইয়ে ফেলা এমন মানুষদের কথা ভেবেই এই শর্ট ফিল্মটি বানানো হয়েছে। যা দেখে চোখে জল ধরে রাখতে পারেননি অনেকেই।

জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত সিনেমা ‘বধাই হো’র পরিচালক অমিত শর্মা এই শর্ট ফিল্মটি বানিয়েছেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি মিষ্টির দোকানের মালিক পূজা নামের একটি মেয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট করে লিখেছেন, “যাঁরা এই লকডাউনে চাকরি খুইয়েছেন, তাঁদের নতুন চাকরির সুযোগ আছে।”। মুহূর্তের মধ্যেই ইলেকট্রিশিয়ান, ডেলিভারি ম্যান, আরও অনেকে এসে উপস্থিত হন তাঁর দোকানে।

কাউকেই ফেরত পাঠাননি পূজা। বরং প্রয়োজনের তুলনায় বেশি সংখ্যক কর্মচারী নিয়োগ করেন তাঁর ছোট দোকানের জন্য। পূজা এতজনকে বেতন দিতে নিজেই অপারগ। সে নিজের গাড়ি বিক্রি করে দেয় প্রত্যেকের কথা ভেবে। দিওয়ালির সময় প্রত্যেকের পরিবারের সদস্য যাতে হাসিমুখে কাটায় সেই উদ্দেশ্যেই সে এমনটা করেছে বলেই তাঁর ভাইকে জানায়।

তারপরেই দেখা যায়, কয়েকদিন পরেই পূজার দোকানের কর্মচারীরা ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করে সকলকে তাঁদের দোকান থেকে জিনিস কিনতে অনুরোধ করেন। ফেসবুকে সেই ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়লে একদিনের মধ্যে দোকানে উপচে পড়া ভিড় দেখে পূজা অবাক হয়ে যায়। হাসি ফোটে পূজার দোকানের সমস্ত কর্মচারীর মুখে। কারোর ভাল করলে, সেটা ফেরত আসে, এই ভিডিওর মাধ্যমে এমন বার্তাই পৌঁছানো হয়েছে।

ভিডিওটি দেখার পর অনেকেই শেয়ার করে লিখেছেন, “চোখে জল এসে গেল”। এমনটাও অনেকে লিখেছেন, “আমাদের ছোট বুটিক। সেটা ফেসবুকের মাধ্যমেই চলে। আমাদের জীবনে ফেসবুকের ভূমিকা কতটা সেটা আমরাই কেবল জানি। ফেসবুককে ধন্যবাদ না দিয়ে পারছি না।”। অনেকে এও লিখেছেন, “এইবছর দিওয়ালির সেরা ভিডিও এটি। হৃদয় ছুঁয়ে গেল। বহু দিন মনে থাকবে ভিডিওটি।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More