নেতাজির ছবির বদলে ‘গুমনামি’ প্রসেনজিতের ছবি উন্মোচন করেছেন রাষ্ট্রপতি! ট্রোল করার আগে সত্যিটা জেনে নিন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাষ্ট্রপতি ভবনে নেতাজি সুভাষচন্দ্রর একটি ছবির আবরণ উন্মোচিত করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। আর তাই নিয়েই ট্রোলের ঝড় বয়ে গেছে নেট-দুনিয়া জুড়ে। সাধারণ মানুষের একটা বড় অংশের দাবি, নেতাজির ছবি উন্মোচন করতে গিয়ে আদতে প্রসেনজিত চট্টোপাধ্যায়ের ছবি উন্মোচন করেছেন রাষ্ট্রপতি। যদিও এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়ে রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে জানানো হয়েছে, ছবিটি কোনও ভাবেই প্রসেনজিতের নয়। এটি শিল্পী পরেশ মাইতির আঁকা নেতাজির পোর্ট্রেটের প্রতিকৃতি।

গত পরশু, ২৩ জানুয়ারি নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ভবনে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর একটি প্রতিকৃতির উন্মোচন করেছিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দ। সেই উন্মোচনের ছবি টুইটারেও পোস্ট করা হয়েছিল রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে। তার পরেই আছড়ে পড়ে আক্রমণ ও বিদ্রুপ। দাবি করা হয়, সেই ছবিটিই নেতাজির নয়, বরং নেতাজির ভূমিকায় অভিনয় করা প্রসেনজিতের।

নেতাজিকে নিয়ে সৃজিত মুখোপাধ্যায় ২০১৯ সালে ছবি করেছিলেন গুমনামি। সেখানে নেতাজির চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন প্রসেনজিত। তাঁর সেই ছবি দেখেই নাকি রাষ্ট্রপতি ভবনে উদ্বোধন করা প্রতিকৃতিটি আঁকা হয়েছে বলে দাবি করেন নেটিজেনদের একাংশ। আর সেটিই নাকি নেতাজির ছবি হিসেবে উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি।

অনেকেই ট্রোল করতে থাকেন ঘটনাটিকে। কেউ বলেন, এ যেন ভগত সিংয়ের নাম করে অজয় দেবগণের গলায় মালা পরানো। কেউ আবার বলেন, রাষ্ট্রপতি হিসেবে ন্যূনতম দায়িত্বও নেই রামনাথ কোবিন্দের! সাধারণ নেটিজেনরাই শুধু নন, এটি প্রসেনজিতের ছবি এমন দাবি জানিয়ে টুইট করেন তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রও। তিনি রাষ্ট্রপতি ভবনের ওই ছবির টুইট রিটুইট করে লেখেন, “ভগবান ভারতকে রক্ষা করুক, কারণ এই সরকার তো করতে পারবে না’।  পরে অবশ্য বিতর্কিত টুইটটি মুছে দেন মহুয়া মৈত্র।

পরে জানা যায়, চিত্রকর পরেশ মাইতি বসু পরিবারের সদস্যা জয়ন্তী বসু রক্ষিতের কাছ থেকে নেওয়া একটি নেতাজির ছবির উপর ভিত্তি করে এই ছবিটি এঁকেছেন। এর সঙ্গে গুমনামির বা প্রসেনজিতের কোনও সম্পর্ক নেই। এর পরে টুইট করেন সৃজিত মুখোপাধ্যায় নিজেও। তিনি পরেশ মাইতির আঁকা আসল ছবিটি আপলোড করে লেখেন, প্রসেনজিতের অভিনীত গুমনামির সঙ্গে এ ছবির এত মিলের পেছনে যে মানুষটি আছেন, তিনি হলেন সিনেমার মেক আপ আর্টিস্ট সোমনাথ কুণ্ডু।

এর পরে আবার পুরোনো টুইট ঘেঁটে দেখা যায় নেতাজির পরিবারের সদস্য তথা বিজেপি নেতা চন্দ্র কুমার বসু ২০১৯ সালের ২৬ ডিসেম্বর নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে নেতাজির এই ছবিটি আগেই টুইট করেছিলেন। সেই প্রতিকৃতিই উন্মোচন করেছেন রাষ্ট্রপতি, যাতে আদতেই কোনও ভুল নেই। কিন্তু উতসাহী নেটিজেনদের একাংশ অবশ্য এত ক্রসচেক করতে রাজি নন। তাঁদের বোধহয় ট্রোল করাতেই আনন্দ।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More