কলকাতায় কঙ্গনার বিরুদ্ধে এফআইআর, মমতা সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্যের জের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কঙ্গনা রানাওয়াতের সময়টা একেবারেই ভাল যাচ্ছে না। একে তো তাঁর টুইটার হ্যান্ডল বন্ধ করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই এবার কলকাতায় এফআইআর দায়ের হল অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে।

ভোটের ফল প্রকাশের দিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে যে টুইট করেছিলেন কঙ্গনা, তা নিয়ে উল্টোডাঙা থানায় এফআইআর দায়ের করেছেন ঋজু দত্ত নামের এক তৃণমূল সমর্থক।

রবিবার তখন ভোট গণনা শেষ হয়নি। তবে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে ফের নবান্নে যাচ্ছেন দিদি। পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতায় ফের ক্ষমতায় আসতে চলেছে তৃণমূল। গণনা শুরুর সময় সেয়ানে-সেয়ানে লড়াই হলেও, বেলা বাড়তেই গ্রাফটা পরিষ্কার হতে থাকে। তাতে দেখা যায়, প্রধান প্রতিপক্ষ দল বিজেপিকে অনেকটা পিছনে ফেলে জয়ের পথ পরিষ্কার করেছে তৃণমূল। ২০০-র উপরে আসন নিজেদের দখলে রাখতে চলেছে জোড়া ফুল, অন্যদিকে তিন সংখ্যার ঘরে প্রবেশও করতে পারেনি বিজেপি।

কিন্তু কঙ্গনা যেন কিছুতেই সেই ফল মেনে নিতে পারেননি। ট্যুইটে তিনি লেখেন, “বাংলাদেশী আর রোহিঙ্গারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সবচেয়ে বড় শক্তি। যা ট্রেন্ড দেখছি, সেখানে হিন্দুরা আর সংখ্যাগরিষ্ঠতায় নেই। তথ্য অনুযায়ী, বাংলার মুসলিমরা সবচেয়ে গরিব আর বঞ্চিত। ভাল, আর একটা কাশ্মীর হতে চলেছে।”

শুধু এইটুকু নয়, আরও টুইট করে কঙ্গনা বলেন যে, “মোদী-শাহ বাংলাতে খুবই ভাল কাজ করছেন। ৩টে আসন থেকে এতগুলো আসন পেয়েছে বিজেপি। তবে এই মুহূর্ত বাংলাতে প্রয়োজন এনআরসি আর সিএএ।”

অনেকের মতে, মুম্বইতে বসে কঙ্গনার এ হেন টুইট শুধু আপত্তিকর নয়, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির পক্ষেও বিপজ্জনক। এবার সরাসরি এফআইআর দায়ের হল তাঁর বিরুদ্ধে। খোদ কলকাতায়।

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More