বিয়ের আগে ফিটনেস আর গ্ল্যামার বাড়াতে মেনে চলুন এই নিয়ম

0

রাখী চট্টোপাধ্যায়

অঘ্রানের শুরুতে যেমন উত্তুরে হাওয়ায় শিহরণ জাগায়, তেমনই মন চনমন করে ওঠে চারিদিকে সানাইয়ের সুরে। কারণ অগ্রহায়ণ মানেই বিয়ের মরশুম। বিয়েতে সাজগোজ করে গিয়ে জমিয়ে ভোজ কার না ভালো লাগে! আবার এই বিয়ের মধ্যে দিয়েই চরম পরিবর্তন আসে বর আর কনে ২জনেরই জীবনে। তাই বিয়ের আগে কিছু শারীরিক আর মানসিক প্রস্তুতি দরকার। ভাবছেন, নতুন জীবনের সূচনায় নিজেকে ভালো রাখবেন কীভাবে! রইল কিছু টিপস…
ভালো থাকুন ভিতর থেকে: বিয়ের অন্তত একমাস আগে থেকে ব্যালান্সড ডায়েট মেইনটেন করা খুব জরুরি। আমরা পার্লারে ছুটি বারবার, কিন্তু ভুলে যাই বাইরে থেকে সুন্দর তখনই হওয়া যায়, যখন শরীরের ভিতর থেকে ভালো থাকা যায়।
আপনার রোজকার ডায়েটে অবশ্যই রাখুন:
১. গাজর এতে রয়েছে প্রচুর বিটা ক্যারোটিন যা শরীর থেকে ফ্রি রডিক্যাল সরিয়ে রিঙ্কল দূর করে ও স্কিনকে সতেজ রাখে।২. আমলা ও লেবু জাতীয় ফল- ভিটামিন সি সমৃদ্ধ এই ফলগুলি অ্যান্টি অক্সিডেন্ট হিসাবে কাজ করে ও কোলাজেন তৈরিতে সাহায্য করে যা ত্বকের ইলাস্টিসিটি বজায় রাখে।
৩. বিট- অ্যান্টি অক্সিডেন্টে ভরপুর এই সবজি শরীর থেকে টক্সিন দূর করে, ত্বক ও চুলকেও সজীব রাখে।
৪ সবুজ শাকপাতা- সবুজ রঙের দিকে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থাকলে যেমন চোখের আরাম হয়, তেমনই অভ্যন্তরীণ ক্ষেত্রেও এটি খুব উপকারী। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে, ফলে ত্বকের নানাবিধ সমস্যাও দূর হয়। আবার ফাইবার পেট ভার রেখে ওজন নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে। এতে উপস্থিত থাকে কিছু পরিমাণ সালফারও, যা ত্বকের সমস্যা রোধ করে।৫. বেরি- ভিটামিন সি ও জিঙ্কের উপস্থিতি যেকোনও বেরি জাতীয় ফলকে করে তোলে সুপার ফুড। এছাড়াও এতে থাকে বি কমপ্লেক্স ও ভিটামিন সি, যা ত্বকের ছোট ছোট ক্যাপিলারজগুলোকে শক্তি যোগায়, ফলে ত্বক টান টান থাকে।
৬.কলা- প্রচুর ফাইবার, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, ভিটামিন-এ সমৃদ্ধ এই ফল স্ক্যাল্পে সেবাম প্রোডাকশন বাড়ায় ফলে চুলের স্বাস্থ্য ভালো থাকে।
৭.পেয়ারা-  এই ফলে ভিটামিন সি, এ ও পেকটিনের উপস্থিতি পরিপাকতন্ত্রকে ভালো রাখে, ও চুলের স্বাস্থ্যের জন্যও খুব উপকারী।৮. স্প্রাউটস-  অঙ্কুরিত ছোলা বা মুগ আরেকটি সুপারফুড। রয়েছে প্রচুর পরিমানে ফাইবার যা ওজন নিয়ন্ত্রণ করে, ভিটামিন সি ও সিস্টিন নামক অ্যামাইনো এসিড যা কেরাটিন তৈরিতে সাহায্য করে ও চুলের ভলিউম বাড়ায়। উপস্থিত ফোলেট চুলের ডগা ফেটে যাওয়া থেকে রক্ষা করে।
৯.মাছ- কথায় আছে মাছে ভাতে বাঙালি। মাছে রয়েছে প্রচুর ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, যা খুব তাড়াতাড়ি শোষিত হয়ে মস্তিষ্কের কোষগুলিকে উদ্দীপিত করে ফলে দেহের সাথে মনও ভালো থাকে।১০. টক দই: উপস্থিত প্রো বায়োটিক ব্যাকটেরিয়া গাট হেলথ কে ভালো রাখে, ফলে পাচনতন্ত্র সর্বোপরি ভালো থাকে।
১১.নাটস- ওয়ালনাট, আমন্ড ইত্যাদিতে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, EFA, যা ভিটামিন K-র সাথে মিলে বায়োটিন তৈরিতে সাহায্য করে। ফলে চুলের স্বাস্থ্য ভালো থাকে।
১২. সিডস- সিয়া সিড, পাম্পকিন সিড, সানফ্লাওয়ার সিড ইত্যাদিতে রয়েছে প্রচুর ফাইবার, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, জিঙ্ক, প্রোটিন ও ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, ফলে ডায়েটে তো রাখতেই হবে।
এই ১১টি সুপার ফুড যেমন ডায়েটে রাখতে হবে, এর সাথে সাথেই খুব সহজ কয়েকটা গাইডলাইনও মেনে চলা কিন্তু জরুরি-
১. প্রতিদিন আধ ঘণ্টা ব্যায়াম ও মেডিটেশন কিন্তু মাস্ট।
২. মিনিমাম ৩ লিটার জল সারাদিনে থাকবেই।
৩. পরপর আইবুড়োভাত খাওয়ার সময় নজর রাখুন ওজনের দিকেও,একবেলা ভারী খাওয়া হলে অন্যবেলায় চিকেন বা ভেজি স্যুপ চলতে পারে।
৪. পর্যাপ্ত সাত থেকে আট ঘণ্টা ঘুম কিন্তু খুব জরুরি।৫. ভালো গান শুনুন। অযথা চিন্তা ছেড়ে দিন কারণ এই সময় মন ভালো রাখা কিন্তু সবার আগে।
তাহলে আর চিন্তা কীসের? আপনার বিয়ের আগের দিনগুলো থাকুক নিয়ন্ত্রিত, আর বিয়ের দিন ঝলমল করে উঠুন যাতে আপনার দিক থেকে চোখই না সরে…

লেখিকা  নারায়ণা হসপিটাল,হাওড়ার সিনিয়ার ডায়েটিশিয়ান

 

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.