করোনায় বিশ্ব জুড়ে সেরে উঠলেন ১ কোটির বেশি মানুষ

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বিশ্ব জুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৬০ লক্ষের বেশি মানুষ। তাঁদের মধ্যে সেরে উঠেছেন ১ কোটি। এখনও অতিমহামারীর প্রকোপ কমেনি। ক্রমশ নতুন নতুন দেশে ছড়াচ্ছে কোভিড ১৯। তার পরেও ১ কোটির বেশি মানুষের সেরে ওঠার খবরে স্বস্তি পেয়েছেন অনেকে। গত সোমবার পর্যন্ত সেরে উঠেছেন ১ কোটি ১২ লক্ষ ৭ হাজার ৫০৭ জন।

গত কয়েকদিনে দেখা গিয়েছে, কয়েকটি দেশে নতুন করে দেখা দিয়েছে রোগের প্রকোপ। যে দেশগুলি একসময় করোনা নিয়ন্ত্রণ করে ফেলেছে ভাবা হয়েছিল, সেখানে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন অনেকে। তাছাড়া বিশ্বের তিনটি অন্যতম জনবহুল দেশ আমেরিকা, ব্রাজিল ও ভারতে ক্রমাগত বেড়েই চলেছে সংক্রমণ।

বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, করোনায় সুস্থ হয়ে ওঠার হার ৯৪ শতাংশ। তবে রোগীদের এক বড় অংশ ছিলেন উপসর্গহীন। তাঁরা যে আক্রান্ত হয়েছেন কেউ জানতই না। সকলের অজান্তে তাঁরা সংক্রমিত হয়েছেন এবং সেরেও উঠেছেন। তাঁদের সংখ্যা হিসাব করলে করোনায় সেরে ওঠার হার আরও বাড়বে।

বিশ্ব জুড়ে করোনার প্রতিষেধক তৈরির চেষ্টা চলছে জোর কদমে। ব্রিটেনে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রজেনেকার ডিএনএ ভেক্টর ভ্যাকসিনের প্রথম পর্যায়ের ট্রায়ালে সাফল্যে খবর এসেছে। ভারতে অক্সফোর্ডের ফর্মুলায় টিকা তৈরি করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। দেশের তৈরি এই টিকার নাম ‘কোভিশিল্ড’ । সেরাম জানিয়েছে, ড্রাগ কন্ট্রোলের অনুমতি পেলে খুব তাড়াতাড়ি টিকা দেওয়া শুরু হয়ে যাবে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের জন্য অনুমতি চাওয়া হয়েছে।

দেশে করোনার টিকার ট্রায়াল ও গবেষণার তত্ত্বাবধানের দায়িত্বে আছে কেন্দ্রের বায়োটেকনোলজি বিভাগ। সচিব রেণু স্বরূপ বলেছেন, “দেশের পাঁচ জায়গাকে বেছে নেওয়া হয়েছে অক্সফোর্ডের টিকার ট্রায়ালের জন্য। হাজারজনের বেশি স্বেচ্ছাসেবককে টিকা দেওয়া হবে। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি এই টিকার ট্রায়াল করে সাফল্য পেয়েছে। দেশে এই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করে তার ফলাফল দেখতে হবে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ে টিকার ট্রায়াল সন্তোষজনক হলেই ভ্যাকসিনের ডোজ তৈরি করতে শুরু করবে সেরাম।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More