মুখ্যসচিবকে ডাকলেন রাজ্যপাল, ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে রিপোর্ট না পাওয়ায় ক্ষোভ টুইটে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাংলায় ভোট পরবর্তী হিংসার বিষয়ে বিস্তারিত জানতে রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে তলব করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। শনিবার সন্ধে সাতটায় মুখ্যসচিবকে রাজভবনে ডেকে পাঠিয়েছেন রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান।
রাজ্যপাল জানিয়েছেন অতিরক্ত মুখ্যসচিব এইচ এস দ্বিবেদীর কাছে তিনি রিপোর্ট চেয়েছিলেন। তা তিনি পাঠাননি। তাই মুখ্যসচিবকে ডেকে পাঠিয়েছেন। ক্ষোভের সঙ্গেই রাজ্যপাল টুইটে লিখেছেন, কলকাতার পুলিশ কমিশনার এবং রাজ্য পুলিশের ডিজি অতিরিক্ত মুখ্যসচিবকে যে রিপোর্ট দিয়েছেন তাও তিনি রাজভবনে পাঠাননি। তিনি তাঁর কর্তব্য পালন করেননি বলেও ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন ধনকড়।
গতকাল কেন্দ্রীয় টিম রাজভবনে গিয়েছিল। তা ছাড়া অমিত শাহের মন্ত্রক পৃথক ভাবে রাজ্যপালের রিপোর্ট চেয়েছে। এর আগেও রাজ্যপাল বাংলার আইনশৃঙ্খলা নিয়ে একাধিকবার সরব হয়েছেন। দিল্লি বয়ে নিজেই রিপোর্ট তুলে দিয়ে এসেছিলেন অমিত শাহের হাতে। এবার রিপোর্ট চেয়েছে নর্থ ব্লক।

ভোট গণনার পর থেকে বাংলার হিংসা নিয়ে সরব বিজেপি। কয়েকদিন আগে রাজ্যপালকে ফোন করেছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, এর মধ্যেই তাঁদের পাঁচ কর্মীকে খুন করেছে তৃণমূল। জখম করা হয়েছে কয়েকশ কর্মীকে। বাড়িঘর, দোকানপাট লুঠ থেকে মহিলাদের শ্লীলতাহানি কিছুই বাদ যাচ্ছে না বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের।
মেদিনীপুরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর উপর হামলা নিয়েও বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা তীব্র সমালোচনা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের। প্রকাশ জাভড়েকর বলেছেন, যে রাজ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর উপর হামলা হচ্ছে সেখানে সাধারণ মানুষের অবস্থা কেমন তা বোঝাই যাচ্ছে। যদিও পরশুদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, করোনার সময়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা বাংলায় আসছেন কেন?
তবে দ্বিতীয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের সময়ে নবান্ন আর রাজভবনের মধ্যে একটা অদৃশ্য পাঁচিল উঠে গেছিল। এখন দেখার শনিবার সন্ধেবেলা আলাপনবাবু রাজভবনে যান কি না।

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More