মা হওয়ার পর মানসিক সমস্যায় ভুগছেন সেরেনা!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত সপ্তাহেই কেরিয়ারের সবচেয়ে জঘন্য হারের মুখে পড়েন সাফল্যের বিচারে সফলতম টেনিস খেলোয়াড় সেরেনা উইলিয়ামস। সান জোসে ওপেনের প্রথম রাউন্ডে ব্রিটিশ তারকা জোহান্না কোন্টার কাছে ২৩ টি গ্র্যান্ডস্লামের মালকিন সেরেনা হেরেছিলেন ০-৬,১-৬ ফলে। উইম্বলডনের ফাইনালে অ্যাঞ্জেলিক কের্বেরের কাছে হারের পর সেটাই ছিল সেরেনার প্রথম ম্যাচ। এই হারের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সেরেনার মন্তব্যে শোরগোল পড়ে যায়।

সেই ম্যাচে হারের পর সেরেনা সোশ্যাল মিডিয়ায় সোমবার লেখেন, ”গত সপ্তাহটা আমার কাছে মোটেই সহজ ছিল না। আমি কিছু কঠিন ব্যক্তিগত জিনিস মেনে নিচ্ছি তাই নয়, আমি একটা শঙ্কার মধ্যেও আছি। শঙ্কাটা-র বেশিরভাগটাই হল কেন যেন মনে হচ্ছে আমি ভাল মা হতে পারছি না।।” সেরেনা এরপর বলেন, তিনি তাঁর মানসিক অবস্থার কথা পরিবারের মানুষ, বন্ধুদের মরিয়া হয়ে বোঝানোর চেষ্টা করছেন। তবে হয়তো তিনি সেটা করতে পারছেন না। এরপর ৩৬ বছরের মার্কিন এই টেনিস তারকা বলেন, ”আমি আমার মা, বোন, বন্ধুদের বোঝানোর চেষ্টা করছি আমার আবেগটা একেবারে স্বাভাবিক। আমি আমার সন্তানের জন্য যথেষ্ট করতে পারছি না। আমি ঘরে থাকি বা কাজে, আমি ভারসাম্যটা খুঁজে পাচ্ছি না। আমার মনে হয়ে এই ভারসাম্য খুঁজে পাওয়াটাই আসল শিল্প।”

সেরেনার এমন কথা শোনার পর ঝড় বয়ে যায়। সেরেনা নিজেই জানান তিনি ‘পোস্টপার্টাম ইমোশন’-সমস্যার শিকার। গত বছর সেপ্টেম্বরে কন্যা সন্তান অলিম্পিয়ার জন্ম দেন সেরেনা। সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর বেশ কয়েকজন মায়ের ক্ষেত্রে এমন সমস্যা দেখা যায়। যাকে মনোবিদ্যার পরিভাষায় বলে ‘পোস্টপার্টাম ইমোশন’। যাকে সহজভাবে বললে বোঝায় সন্তানের জন্ম দেওয়ার পর মেয়েদের মানসিক অবস্থার পরিবর্তন। যাতে মায়েদের মনে হয় তিনি তাদের সন্তান বা পরিবারের জন্য যথেষ্ট করতে পারছেন না। সেরেনা এই নিয়ে বলছেন, ‘ তিনি পোস্টপার্টাম ইমোশন নিয়ে নানা ধরনের লেখালেখি পড়ছেন। এমন অবস্থা বছর তিনেক চলতে পারে। ‘ এই মানসিক অবস্থা নিয়েও সন্তান জন্ম দেওয়ার ৯ মাসের মধ্যে উইম্বলডনের ফাইনালে উঠেছিলেন সেরেনা।

তবে উইম্বলডন চলাকালীন মেয়ের জন্য কেঁদে বলেছিলেন, খুব মিস করছি ওকে। টেনিসের মত শারীরিক ধকলের খেলায় মা হওয়ার পর গ্র্যান্ডস্লাম জেতার কাজটা খুব কঠিন। যে কাজটা করে দেখিয়েছিলেন কিম ক্লিস্টার্স। সন্তানের জন্ম দিয়ে বেলজিয়ামের ক্লিস্টার্স জিতেছিলেন ২০১০ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের খেতাব। এখন দেখার সবসময় লড়াকু মানসিকতা নিয়ে নামা সেরেনা উইলিয়ামস এই যুদ্ধে জয়ী হতে পারেন কি না।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More