রাত ৩ টের সময় রোজ ঘুম ভেঙে যায়? কেন হচ্ছে এমন

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রোজই মাঝ রাতে ঘুমটা ভাঙে। চোখ খুলে ঘড়ির দিকে তাকিয়ে দেখেন রাত ৩টে। চারদিকে ঘুটঘুটে অন্ধকার। গভীর ঘুমে আপনার আশপাশের লোকজন। শুধু আপনারই দু’চোখ খোলা। শরীরেও একটা অস্বস্তি।

অনেকেই এই পরিস্থিতির সাথে পরিচিত। আপনার সঙ্গে এমনটা ঘটলে জেনে নিন, আপনি একা নন। এমনটা অনেকের সঙ্গেই ঘটে। কেন রাত ৩টেয় ঘুম ভাঙে, তার পেছনে আছে বৈজ্ঞানিক কারণ।

বিজ্ঞান অনুসারে, গড়ে একজন ব্যক্তি প্রতি রাতে প্রায় ৭ থেকে ১৫ বার ঘুম থেকে ওঠেন। ঘুমের সময় শরীরে অবস্থান বদল একটা কারণ, তাছাড়া আরও নানা কারণ আছে।

Why often people wake up at 3 am | The Times of India

কেন ঘুম ভাঙে মাঝ রাতে, শারীরিক কারণ নাকি মানসিক?

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বেশি রাত অবধি মোবাইল বা ল্যাপটপ নিয়ে থাকলে ঘুমের দফারফা হয়। মস্তিষ্ক ঠিকভাবে বিশ্রাম পায় না। ফলে বারে বারে ঘুম ভেঙে যেতে পারে।

অতিরিক্ত স্ট্রেস, কাজের চিন্তা, উৎকণ্ঠা নিয়ে ঘুমোতে গেলে ঘুম ভাঙতে পারে। যদি ঘুম ভাঙার পরে শরীরে অস্বস্তি হয় তাহলে বুঝতে হবে মানসিক চাপ সাংঘাতিক।

The Spiritual Reasons Why You Wake Up At 3am | YourTango

সেডেন্টারি লাইফস্টাইলে মানুষ সবসময়েই একরাশ চিন্তা-ভাবনা মাথায়, মনে জমিয়ে রাখে। অবসাদ, স্ট্রেসে হাঁসফাঁস করে ব্রেন। এত চিন্তার পাহাড় ডিঙিয়ে তাই শান্তির ঘুম নেমে আসাটা খুবই মুশকিল।

শারীরিক কারণও রয়েছে। ডায়াবেটিস, অ্যাসিড রিফ্লাক্স, ফ্যাটি লিভার ও ওবেসিটির সমস্যা থাকে যাদের তারা স্লিপিং ডিসঅর্ডারে ভোগে। ফলে ঘুম আসতে চায় না বা একটানা নিশ্ছিদ্র ঘুম হয় না।

Why Do I Wake Up at 3AM? 6 Reasons Why and How to Stop It | Dr. Ian Stern

হরমোনের তারতম্যও ঘুমের সমস্যার বড় কারণ। মহিলাদের মেনোপজের সময় হরমোনের নানারকম বদল হয়। তার প্রভাব পড়ে শরীরে। যার কারণেও অনেক সময় অনিদ্রা বা ইনসমনিয়া এসে হানা দেয়।

পেশাগত কারণও থাকতে পারে। প্রতিযোগিতার দৌড়ে সারাদিনই কম্পিউটার, ল্যাপটপে মুখ গুঁজে থাকলে মাথায় চাপ পড়ে। স্নায়ুরা বিদ্রোহ করে। রাতে শুয়েও অনেকের মোবাইল ঘাঁটাঘাঁটি করার অভ্যাস আছে। ডাক্তাররা বলেন, মোবাইলের নীল আলো সরাসরি মস্তিষ্কে গিয়ে আঘাত করে। ঘুমের ব্যাঘাত হয়। দিনের পর দিন এমন চালালে ক্রনিক স্লিপিং ডিসঅর্ডারও হতে পারে।

হেডফোনে দীর্ঘ সময় গান শোনার অভ্যাস আছে অনেকের। রাতে শুয়ে কানে হেডফোনে গুঁজে মনে যতই আবেগ আসুক, চোখে ঘুম সহজে আসবে না। ডাক্তাররা বলেন, হাই-ভলিউমে গান শোনেন যাঁরা, তাঁদের মস্তিষ্কে চাপ পড়ে। মাথা ব্যথা দিয়ে শুরু হয়ে মাইগ্রেনে গিয়ে শেষ হতে পারে। এটাও বারে বারে ঘুম ভেঙে যাওয়ার কারণ।

7 reasons why you wake up early

নিয়মিত রাতে জেগে ওঠা এবং আবার ঘুমানোর জন্য চেষ্টা করেও না পারলে, পরের দিন সকালে তা আপনার মেজাজ এবং স্বাস্থ্যকে নষ্ট করে দিতে পারে। সুতরাং, ঘুম ভাঙলেও ফের ঘুমিয়ে পড়ার চেষ্টা করুন। সহজে ঘুম না এলে এইভাবে চেষ্টা করতে পারেন–

* গভীরভাবে নিঃশ্বাস নিন এবং ছাড়ুন।
* মেডিটেশন করতে পারেন।
* এমন কিছু পড়ুন যা আসলে বোরিং, এমনিতেই ঘুম চলে আসবে!
* রাতে ঘুম ভেঙে গেলেওে আপনার সেল ফোনটি ব্যবহার করবেন না। তার থেকে ডিপ ব্রিদিং করুন, ঘুম চলে আসবে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকাসুখপাঠ

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.