ক্যানসার প্রতিরোধে শীতের যে খাবারগুলো নিয়মিত খেতে বলছেন ডাক্তাররা, দেখে নিন এক ঝলকে

1

দ্য ওয়াল ব্যুরো: যেকোনও ধরনের রোগ প্রতিরোধে প্রতিদিন ফল, শাক সবজি খাওয়ার প্রতি জোর দিতে বলছেন ডাক্তাররা। শুধু সাময়িকভাবে সুস্থই রাখে না, বরং আগামীর জন্যে, ক্যানসার প্রতিরোধেও ভীষণ উপকারী শাক সবজি রয়েছে। শীতকাল মানেই তো বাজারভর্তি রঙ-বেরঙের সবজি। কিন্তু তার মধ্যেও এমন কিছু কিছু বিশেষ ফল, সবজি আছে যেগুলোর মধ্যে অ্যান্টি-ক্যানসার গুণাবলিও রয়েছে। যেমন

১. আখরোট

সমীক্ষায় জানা গেছে আখরোটের মধ্যে রয়েছে আলফা লিনোলেনিক অ্যাসিড, ফাইটোস্টেরোলস, মেলাটোনিন। যা ব্রেস্ট ক্যানসার, কোলন টিউমার, প্রস্টেট ক্যানসার রুখতে সাহায্য করে।

২. আপেল

আপেলের মধ্যে রয়েছে কোয়েরসেটিন, এপিকেটচিন, অ্যান্থোসিয়ানিন, ট্রিটারপিনয়েডস। যা কোলোলেকটারাল ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

৩. কুমড়ো

কুমড়ো দিয়ে নানারকম তরকারি যেমন তৈরি করা হয়, তেমনই স্যুপ তৈরি করেও বহু মানুষ খান। সূর্যরশ্মির কারণে যে স্কিন ক্যানসার সম্ভাবনা থাকে,তা রুখতে সাহায্য করে কুমড়ো।

৪. ব্রকোলি

ব্রকোলির মধ্যে রয়েছে গ্লুকোসিনোলেটস। যা শরীরে আইসোথিওসিয়ানেটস-এ রূপান্তরিত হয়। যেকোনও ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা কমিয়ে দেয় ব্রকোলি।

৫. রসুন

রসুনের মধ্যে রয়েছে সালফার। যা শরীরে ইমিউনিটি বুস্ট করতে সাহায্য করে। তাছাড়াও স্টমাক, কোলন, প্যানক্রিয়াস, ব্রেস্ট ক্যানসার রুখতেও সাহায্য করে রসুন।

৬. গাজর

গাজরের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে রয়েছে বেটা ক্যারোটিন, ফ্যালক্যারিনোল। শীতে নিয়মিত গাজর খেলে ব্রেস্ট, প্রোস্টেট, ইন্টেস্টাইন ক্যানসার হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

৭. চেরি

লাল টুকটুকে ছোট্ট মিষ্টি ফলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্থোসায়ানিন। যা একপ্রকার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। ক্যানসার প্রতিরোধে এটিও খুব উপকারী।

৮. গ্রিন টি

গ্রিন টি-র উপকারিতা সম্পর্কে সকলেই অবগত। এই গ্রিন টির মধ্যে রয়েছে কেটচিনস। যা লিভার, ব্রেস্ট, কোলন ক্যানসার রুখতে সাহায্য করে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.