কাকে জড়িয়ে ধরলেন সেটা না দেখে, করোনাবিধি মেনে চলার উপদেশ দিলেন গায়িকা ইমন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত রবিবার ‘সারেগামাপা’-এর গ্র্যান্ড ফাইনালের টেলিকাস্ট হয়ে গেছে। আর তার পর থেকেই সেই রিয়েলিটি শোয়ের বিচারকে নিয়ে শুরু হয়েছে নানা বিতর্ক। আর সেই বিতর্ক এখনও পিছু ছাড়েনি। বিচারকদের ও তিনজন গুরুকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয় নানা বিতর্ক। কিন্তু এই বিতর্ক, বাজে মন্তব্যের তীর সবচেয়ে বেশি বিদ্ধ করছে গায়িকা ইমন চক্রবর্তীকে।এমনকি তাঁর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে চলছে আক্রমণ।

নেটিজেনরা অনেকেই সারেগামাপায়ের বিচার নিয়ে সোজাসুজি আঙুল তোলেন ইমনের দিকে। বিচারকদের ‘ঘুষ’ দিয়ে নিজের দলের প্রতিযোগী অর্কদীপ মিশ্রকে জিতিয়েছেন ইমন। জবাব দিতে ফেসবুক লাইভে সেই বিষয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন তিনি। অর্কদীপকে বিজয়ী ঘোষণা করা যে ভুল সিদ্ধান্ত নয়, নিজের অবস্থানে অনড় থেকে সে কথাই জোর গলায় বলেছিলেন গায়িকা। তারই নিদর্শন শুক্রবার নিজের ফেসবুকের দেওয়ালে তুলে ধরলেন জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত গায়িকা।

ইমনকে যে ভাবে আক্রমণ করা হয়েছে তার স্ক্রিনশট তিনি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট করেন। সেখানেই স্পষ্টই দেখা যায় দু’জন মহিলায় ইমনের ব্যক্তিগত জীবন, সম্পর্ক ও চরিত্র নিয়ে বাজে ইঙ্গিত করেছেন। তাঁদের মধ্যে একজন ইমনের প্রাক্তন প্রেমিক শোভনের প্রসঙ্গ তুলে খোঁচা দিয়েছেন তাঁকে। অন্য জন ‘সারেগামাপা’-র মঞ্চে উঠে ইমনের নাচ করায় ঘোর আপত্তি জানিয়েছেন। প্রশ্ন তুলেছেন, প্রতিযোগীদের গুরু হয়েও কেন নাচতে গেলেন গায়িকা? গান ছেড়ে নাচকে পেশা হিসেবে বেছে নেওয়ার কথাও লিখেছেন তিনি। এমনকি ইমনকে তুলনা করেছেন অনুষ্ঠানের আরেক বিচারক আকৃতি কক্করের সঙ্গে। ইমন আকৃতির মতো পরিণতমনস্কের নন বলেই তিনি এমনটা করেছেন বলে অভিমত সেই মহিলার।

তবে ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে এই নোংরা কুরুচিকর মন্তব্য মেনে নিতে রাজি নন গায়িকা। তিনি যথেষ্ট সুর চড়িয়ে, প্রতিবাদ করেই স্ক্রিনশট শেয়ার করেন, এবং ক্যাপশনে লেখেন, “তা বলছি, এই ভাবে যাঁরা গালি দিচ্ছেন, বাড়িতে বসে দিন। বাইরে বেরিয়ে দেবেন না। চারিদিকে কোভিড। হাতে স্মার্ট ফোন, ঘরে বসেই এখন গাল দেওয়া যায়! কি ভাল না?” শুধু এইটুকুই বলেছেন এমন নয়, সেই সঙ্গে বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে মানুষকে সচেতনও করেছেন। ক্যাপশনেই লিখেছেন মাস্ক পরার কথা এবং সাবধানে থাকার কথা।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More