এই প্রথম, পাকিস্তানে গিয়ে বহুদেশীয় সামরিক মহড়ায় যোগ দেবে ভারত? ইতিহাস তৈরির সম্ভাবনা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বলা যায়, দুই পড়শী দেশের মধ্যে মুখ দেখাদেখি কার্যত বন্ধ। এদেশে নাশকতা চালানো, সন্ত্রাসবাদীদের পাঠিয়ে কাশ্মীরে অশান্তি বাঁধানোয়  ভারতের কাঠগড়ায় পাকিস্তান। সেই আবহে কি দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে বরফ গলার ইঙ্গিত কি এটা? চলতি বছরের শেষে সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) আওতায়  খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের নৌশেরা জেলার পাব্বিতে পাকিস্তান নিজেদের মুখ্য সন্ত্রাসবাদ দমন কেন্দ্রে যে বহুদেশীয় মহড়ার আয়োজন করছে, তাতে ভারত সামিল হতে পারে বলে খবর। সত্যিই ভারত ওই কর্মসূচিতে যোগদান করলে নিঃসন্দেহে তা হবে এক ঐতিহাসিক ব্যাপার, কেননা এই প্রথম কোনও সামরিক কুচকাওয়াজে যোগ দিতে ভারতীয় বাহিনী পাকিস্তান যাত্রা করবে। গত সপ্তাহেই খোদ পাক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়াকে ‘অতীতকে পিছনে ফেলে সামনের দিকে এগিয়ে চলা’র প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিতে শোনা গিয়েছে। মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগে দুটি দেশ নিয়ন্ত্রণ রেখায় (এলওসি) যু্দ্ধবিরতি পালনে সম্মত হয়েছে। সেই আবহেই বহুদেশীয় মহড়ায় ভারতের সামিল হওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে চর্চা চলছে। যদিও পাব্বি সন্ত্রাসদমন-২০২১ যৌথ কর্মসূচিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অংশগ্রহণের নিশ্চয়তা নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ ওয়াকিবহাল মহল। কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছে তারা। সূত্রের আরও খবর, প্রস্তাবটি ন্যাশনাল সিকিওরিটি কাউন্সিল সেক্রেটারিয়েটের বিবেচনাধীন রয়েছে। যদিও এবছরে পরের দিকে রাশিয়ায় এসসিও-র ছাতার তলায় যৌথ সামরিক মহড়ায় ভারত সামিল হবে।

চিনা সংবাদ সংস্থা জিনহুয়ার খবর, উজবেকিস্তানের তাসখন্দে আঞ্চলিক মঞ্চ সন্ত্রাসবাদ দমন কাঠামোর ৩৬-তম কাউন্সিল বৈঠকেই পাকিস্তানে পাব্বি-সন্ত্রাসদমন ২০২১ মহড়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সেখান ভারত, কাজাখস্তান, চিন, কিরঘিজ প্রজাতন্ত্র, পাকিস্তান, রাশিয়া, তাজিকিস্তান, উজবেকিস্তান, RATS এক্সিকিউটিভ কমিটির লোকজন হাজির ছিলেন। পাকিস্তানের কয়েকটি সূত্রের খবর, মহড়ার দিনক্ষণ, অংশগ্রহণকারী দেশের নাম এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

প্রসঙ্গত, গত বছরের সেপ্টেম্বর দক্ষিণ  রাশিয়ায় কাভাজ-২০২০ নামে যে বহুদেশীয় সামরিক মহড়া হওয়ার কথা ছিল, তাতে সামিল হয়নি ভারত, কেননা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় উত্তেজনার আবহে চিনা সেনার সঙ্গে কুচকাওয়াজ করতে রাজি ছিল না। প্রথমে অবশ্য ভারতের ২০০ সামরিক জওয়ান, পদাতিক ব্যাটালিয়নের ১৮০ জন জওয়ান, ভারতীয় বায়ুসেনা ও নৌবাহিনীর পর্যবেক্ষকদের সেখানে পাঠানোর প্ল্যান ছিল, কিন্তু শেষ মুহূর্তে উচ্চ পর্যায়ের সামরিক ও কূটনৈতিক বৈঠকের পর  তা বাতিল হয়।

২০১৮য় ভারত,  পাকিস্তান এসসিও-র আওতায় যৌথ মহড়ায় সামিল হয়েছিল। সেখানে ভারতীয় ও পাকিস্তানি সেনা জওয়ানদের একসঙ্গে নাচানাচির একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। ফের কি তেমন কোনও দৃশ্য দেখা যাবে। অপেক্ষা করতে হবে চলতি বছরের  দ্বিতীয়ার্ধ পর্যন্ত।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More