ট্রাম্পের মধ্যস্থতার প্রস্তাব শুনে বিদেশমন্ত্রক বলল, মোদীর সঙ্গে তাঁর বৈঠক অবধি অপেক্ষা করুন

দ্য ওয়াল ব্যুরো : সোমবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পাশে দাঁড়িয়ে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতা করতে রাজি। তার আগের দিনই ট্রাম্পকে মনে হয়েছিল নয়াদিল্লির পরম বন্ধু। তিনি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অবস্থান বদলে ফেলায় অবাক হয়েছেন অনেকে। তাঁদের উদ্দেশে ভারতের বিদেশ মন্ত্রক থেকে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে ট্রাম্পের বৈঠক হওয়া অবধি অপেক্ষা করুন।

দিল্লি আগে একাধিকবার পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছে, কাশ্মীর নিয়ে তৃতীয় পক্ষের মধ্যস্থতা তার কাম্য নয়। তা সত্ত্বেও তিন বার মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, ভারত ও পাকিস্তান যদি চায়, তিনি কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতা করতে তৈরি। এ ব্যাপারে তাঁর আগ্রহ আছে। তাঁর বিশ্বাস, মধ্যস্থতা করতে গিয়ে তিনি সফল হবেন।

তাঁর কথায়, আমি সাহায্য করতেই পারি। আমি নিশ্চয় সাহায্য করব। যদি দুই দেশ চায়, আমি সাহায্য করতে তৈরি। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে আমার খুব ভালো সম্পর্ক আছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গেও আমার ভালো সম্পর্ক আছে। আমি চমৎকার মধ্যস্থতাকারী হতে পারি। আমি মধ্যস্থতা করতে গিয়ে কখনও ব্যর্থ হইনি।

সোমবার সাংবাদিকরা বিদেশ মন্ত্রকের কাছে জানতে চান, ট্রাম্প ফের আগের অবস্থানে ফিরে গিয়ে মধ্যস্থতা করার কথা বলছেন। এই প্রেক্ষিতে বিদেশ মন্ত্রকের বক্তব্য কী? বিদেশ মন্ত্রকের সচিব এ গীতেশ শর্মা বলেন, মোদীর সঙ্গে ট্রাম্পের বৈঠক হবে শীঘ্রই। ততক্ষণ অপেক্ষা করুন। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, আপনারা জানেন আমাদের অবস্থান কী। আপনাদের কাছে একটাই অনুরোধ, মোদীর সঙ্গে ট্রাম্পের মিটিং হওয়া অবধি অপেক্ষা করুন।

গত জুলাই মাসে ট্রাম্প প্রথমবার মধ্যস্থতার প্রস্তাব দেন। তিনি দাবি করেন, প্রধানমন্ত্রী মোদীই তাঁকে জিজ্ঞাসা করেছেন, আপনি কি কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতা করবেন? পরে ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর পরিষ্কার জানিয়ে দেন, মোদী এমন কথা বলেননি। গত অগস্টে ট্রাম্পের পাশে বসেই মোদী বলেন, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে বেশ কয়েকটি বিতর্ক আছে। দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমেই বিতর্ক মিটিয়ে নেওয়া হবে। তৃতীয় পক্ষের মধ্যস্থতার প্রয়োজন নেই।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More