কোভিড-যুদ্ধে ভারতীয় নৌসেনার বিশেষ অপারেশন সমুদ্রসেতু-২, জার্মান সেনাও অক্সিজেন নিয়ে আসছে ভারতে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দেশজুড়ে কোভিডের চিত্র ক্রমেই বীভৎস রূপ নিচ্ছে। চিকিৎসা পরিকাঠামো কার্যত ভেঙে পড়েছে দেশের একটা বড় অংশে। ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে একাধিক দেশ। হংকং, আয়ারল্যান্ড, রাশিয়া, আমেরিকা থেকে এসেছে বিমান-ভর্তি চিকিৎসা সরঞ্জাম। এবার দেশজোড়া প্রাণবায়ুর সংকট মেটাতে এগিয়ে এল ভারতীয় নৌসেনা।

জানা গেছে, দেশে অক্সিজেনের ঘাটতি পূরণ করতে বিদেশ থেকে অক্সিজেন আনতে সমুদ্র সেতু-২ অপারেশন শুরু করেছে ভারতীয় নৌবাহিনী। প্রস্তুতিপর্ব তুঙ্গে। গতকাল, রবিবার ভারতীয় নৌসেনার মুখপাত্রের তরফে টুইটারে এই খবর ঘোষণাও হয়েছে। লেখা হয়েছে, “দেশের ক্রমবর্ধমান করোনা পরিস্থিতিতে অক্সিজেন ও অন্যান্য মেডিকেল পণ্যের চাহিদা মেটাতে ভারতীয় নৌবাহিনী অপারেশন সমুদ্র সেতু-২ চালু করেছে। এই মিশনের ফলে ভারতীয় যুদ্ধ জাহাজগুলি বিদেশ থেকে ক্রায়োজেনিক পাত্রে তরল মেডিকেল অক্সিজেন সরবরাহ করবে। ”

সূত্রের খবর, আইএনএস কলকাতা এবং আইএনএস তালোয়ার নামের এই দুটি যুদ্ধজাহাজকে এই কাজের জন্য পাঠানোও হয়েছে ইতিমধ্যেই। জাহাজ দুটি কয়েক দিন আগে বাহারিনের মানামা বন্দরে প্রবেশ করেছে। আইএনএস তালওয়ার ইতিমধ্যে ৪০ মেট্রিক টন তরল মেডিকেল অক্সিজেন নিয়ে দেশেও ফিরে এসেছে। অন্যদিকে আইএনএস কলকাতা কাতারের দোহায় পৌঁছে গিয়েছে। সেখান থেকে তরল অক্সিজেনেট ট্যাঙ্কগুলি নিয়ে কুয়েতের দিকে যাত্রা করবে।

অন্যদিকে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে এবার ভারতের সংকট মেটাতে এগিয়ে এল জার্মানির সেনাবাহিনীও। জার্মানি নিজেও কয়েক দিন আগে কোভিড ঢেউয়ে নাকানিচোবানি খেয়েছে। এবার সে দেশের সেনা কাজে নামল ভারতের জন্য। সেদেশ থেকে একটি অক্সিজেন জেনারেশন প্ল্যান্ট ভারতে উড়িয়ে নিয়ে আসছে তারা।

জানা গেছে, জার্মানির বিমান বাহিনীর মুখপাত্র কর্নেল ওয়েবার নিজে ওই অক্সিজেন প্ল্যান্ট নিয়ে ভারতে আসছেন। তাঁর সঙ্গে থাকবে একটি টেকনিক্যাল টিমও। ওই টিমের সদস্যরা ভারতের প্রযুক্তিবিদদের অক্সিজেন প্ল্যান্ট তৈরি করতে সাহায্য করবেন। এটা হলে যে দেশের অক্সিজেন সংকটে বড় মাত্রায় উপকার হবে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

একই সঙ্গে জার্মানি থেকে ভারতে আসছে ভেন্টিলেটর, রেসপিরেটর। জার্মানির কন্সেন্ট্রেটরও আগেই এসেছে দু’দফায়। ভারতে নিযুক্ত জার্মানির রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, এইসব সামগ্রী যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More