তাঁর গানে মুগ্ধ সারা দেশ! তবু গ্ল্যামার নয়, স্ট্রাগলই বেশি প্রিয় পবনদীপের

ইন্ডিয়ান আইডল মাতাচ্ছেন পবনদীপ রাজন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তাঁর সুরের জাদুতে মুগ্ধ কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী। ইন্ডিয়ান আইডল ১২-র সেরা ৯ জন প্রতিযোগীর মধ্যে অন্যতম পবনদীপ রাজনের সাফল্যের কথা এখন সবার মুখে মুখে ফিরছে। এমনকি, ভক্তদের অনেকেই মনে করছেন এবার সেরার শিরোপা তাঁর মুকুটেই উঠবে। কিন্তু এত প্রশংসা গায়ে মেখে কী বলছেন পবনদীপ?

পাহাড়ি মফস্বল থেকে উঠে এসে রাতারাতি ভারতের নয়া সেনসেশন হয়ে উঠেছেন তিনি। কিন্তু সঙ্গীত দুনিয়ার আকাশে নতুন তারকা পবনদীপ রাজনকে এখনও ছুঁতে পারেনি অহংকারের আঁচ। নিজের সাফল্যকে অনায়াসেই তিনি ‘মিরাকল’ বলে দেগে দেন। স্পষ্টই জানান, এখনও তাঁকে নিজের গায়ে চিমটি কেটে যাচাই করতে হয় ঘটনা পরম্পরার সত্যতা।

উত্তরাখণ্ডের পাহাড়ের গায়ে ছবির মতো সুন্দর, ছোট্টো শহর চম্পাওয়াত। সেখান থেকেই উঠে এসেছেন পবনদীপ রাজন। তাঁর গান ইতিমধ্যেই তোলপাড় করেছে অসংখ্য ভক্তের হৃদয়! জনপ্রিয়তা যেন আকাশ ছুঁয়েছে। শিল্পা শেঠি, করণ জোহর, জুবিন নৌটিয়াল এমনকি বীরেন্দ্র সেহবাগ পর্যন্ত পবনদীপের প্রশংসায় রীতিমতো পঞ্চমুখ। সাফল্যে উচ্ছ্বসিত হয়েছেন তরুণ শিল্পী। পাখির চোখ এখন শুধুই রিয়েলিটি শো-এর গ্র্যান্ড ফিনালে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে পবনদীপ রাজন বলেছেন, “আমার জীবনটা পুরো ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে গেছে। এটা সত্যিই মিরাকল। মাঝে মাঝে এসব আমার বিশ্বাসই হয় না। আমি এসব নিয়ে মাথা ঘামাতে চাই না। আমার গানের উপরেই ফোকাস করতে চাই।” সাফল্যের চড়াই পথে এ পর্যন্ত যাঁদের পাশে পেয়েছেন, তাঁদের আন্তরিক ধন্যবাদও জানিয়েছেন পবনদীপ। তাঁর কথায়, “যাঁরা আমায় একনাগাড়ে সমর্থন করে গেছেন তাঁদের ধন্যবাদ জানাতে চাই। যদিও প্রত্যেককে আলাদা করে ধন্যবাদ দেওয়া অসম্ভব।”

সকলকে ধন্যবাদ জানানোর জন্য অবশ্য ইতিমধ্যেই একটা সহজ উপায় বেছে নিয়েছেন পবনদীপ। “ওঁদের সবার জন্য আমি খুব শিগগিরই একটা বিশেষ ভিডিও বানাতে চলেছি” বলেন তিনি। তবে আপাতত গান ছাড়া আর কিছুই মাথায় নেই ইন্ডিয়ান আইডলের তরুণ এই শিল্পীর। কারণ তিনি জানেন, গানের মাধ্যমেই মানুষ তাঁকে ভালবাসবেন, আর কিছুতে নয়।

মাত্র ২৫ বছর বয়সেই সঙ্গীত দুনিয়ায় সাড়া ফেলে দিয়েছেন পবনদীপ। তাঁর উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ সম্পর্কে আশাবাদী সকলেই। কিন্তু ‘স্টার’ হওয়ার স্বপ্ন কখনওই দেখেননি তিনি। নিজের সংস্কৃতির দুনিয়ায় কিছু অবদান রাখবেন, এই পবনদীপের একমাত্র ইচ্ছে। ইচ্ছে পূরণের পথে পা বাড়িয়েও ফেলেছেন তিনি। জানিয়েছেন, “আমার সহশিল্পী আশিস কুলকার্নির সঙ্গে মিলে আমি দুটো গান নিয়ে কাজ শুরু করেছি। আশা করি আমাদের গান সব সিনেমার কাজেই লাগবে।”

আগামী দিনে চলার পথ যে খুব মসৃণ হবে, তেমনটা কিন্তু একেবারেই মনে করছেন না পবনদীপ। “আমি জানি আমায় অনেক পরিশ্রম করতে হবে। সবরকম চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে তৈরি আমি। আমি সবসময় স্ট্রাগল করতেই চাই। স্টার হতে চাই না”, বলেছেন তিনি।

বলিউডি সঙ্গীত দুনিয়ায় পাহাড়ি লোকগানের প্রচলন ঘটাতে চান পবনদীপ রাজন। এক্ষেত্রে বাংলা আর পাঞ্জাবি গানের উদাহরণও দিয়েছেন তিনি। ছোটোবেলায় বাড়ির লোকের সঙ্গে বসে টিভিতে ইন্ডিয়ান আইডল দেখতেন, আজ সেই মঞ্চেই একের পর এক বাজিমাত করে চলেছেন পবনদীপ। তাঁর এই স্বপ্নের উড়ান আরও অনেক দূর আকাশে পাড়ি দেবে, তেমনটাই মনে করছেন ভক্তরা।

Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More