শুভমান আউট! উল্লাসে ফেটে পড়লেন ‘মাস্কহীন’ হায়দরাবাদের তরুণী মালকিন, বিতর্কে ‘মিস্ট্রি গার্ল’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চেন্নাইতে রবিবাসরীয় রাতে কেকেআর ও সানরাইজার্স হায়দরাবাদের মধ্যে খেলাটি সেইসময় দারুণ জমে উঠেছে। নাইট ব্যাটসম্যানরা আউট হতেই উল্লাসে ফেটে পড়ছিলেন হায়দরাবাদের সমর্থকরা। যদিও মাঠে সাধারণ দর্শকদের কোনও প্রবেশ ছিল না। তিনি বসেছিলেন ভিআইপি জোনেই।

আচমকা দর্শকের দিকে ক্যামেরা ফিরতেই নজরে আসে কমলা জার্সি পরা এক তরুণী। মুখে নেই মাস্ক। আইপিএলের করোনা সতর্কতা বিধির পরোয়া নেই তাঁর। ক্যামেরা তাঁর দিকেই ঘুরছিল বারবার।
কে ছিলেন সেই তরুনী? জানা গেল পরে।
‘মিস্ট্রি গার্ল’, এই রহস্যের মোড়কে তরুণীর উচ্ছ্বাসের ক্লিপিং দ্রুত ভাইরাল হয় নেটদুনিয়ায়। জানা যায়, তিনিই বর্তমানে সানরাইজার্স টিমের মালকিন, কাব্য মারান। সান গোষ্ঠীর কর্ণধার কলানিধি মারানের কন্যা তিনি।

নিজের ফ্রাঞ্চাইজি, তাই আগ্রহ তো বেশি থাকবেই, একনিষ্ঠ ভক্ত হিসেবে এদিন কমলা জার্সিতে সেজে এসেছিলেন কাব্য, অথচ মাস্ক পরেননি। একটা ক্রিকেট দলের মালকিন হয়ে কীভাবে তিনি নিয়ম লঙ্ঘন করে বক্সে বসে ছিলেন তা নিয়েই প্রশ্ন উঠেছে। বলা হচ্ছে, বজ্র আঁটুনির ফস্কা গেরোই সাধারণত হয়ে থাকে!
ফুটেজে দেখা গেছে, গ্যালারি ভর্তি মানুষের মাঝখানে তিনি এবং তাঁর বন্ধুরা বিসিসিআইয়ের নয়া বিধি গ্রাহ্য না করেই আনন্দ করছেন। বারবার ক্যামেরার ফোকাসে আসা কাব্যকে নিয়ে মানুষের প্রাথমিক কৌতূহল ছিলই। কে তিনি! সেইসঙ্গে, মাস্ক নেই কেন সেই নিয়েও পরে শোরগোল হয়।

তার মধ্যে তরুণীর পরিচয় জানার পর নেটিজেনরা রীতিমত ক্ষুব্ধ। অনেকেই জানিয়েছেন কাব্যর এমন খামখেয়ালিপনার দাম দিতে হতে পারে বাকিদের। কেমন মালকিন তিনি!
গত ফেব্রুয়ারিতে নিলামে উঠেছিল আইপিএল ক্রিকেট দলগুলি। কাব্য মারান হায়দরাবাদ ফ্রাঞ্চাইজি কিনতে চলেছেন এমন খবর নিজে টুইট করে জানিয়েছিলেন। শেষে যখন সবকিছু পাকাপাকি হয়ে যায়, তিনি জানান দল তাঁকে পেয়ে খুব খুশি। সবকিছু ভালয় ভাল মিটল। সেই কাব্যকেই চেন্নাইয়ের এম এ চিদম্বরম স্টেডিয়ামে গতকাল আনন্দে লাফিয়ে উঠতে দেখা গেল।
হায়দরাবাদের স্পিনার রশিদ খানের বলে শুভমান গিল আউট হওয়ার পরেই তাঁকে এমন উচ্ছ্বাস করতে দেখা গিয়েছে। তখন কী আর জানতেন, এই উল্লাসের কাঁটা তাঁকে পরেরদিনই বয়ে বেড়াতে হবে!

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More