প্রিমিয়ার লিগে মহিলা রেফারি হাফ প্যান্ট পরে ম্যাচ খেলানোয় ইরানের টিভিতে সেন্সরের কাঁচি!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আধুনিক সমাজে এখনও যে এমনটা ঘটতে পারে, ভাবলেও লজ্জা হয়! ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে মহিলা রেফারি দ্বারা ম্যাচ পরিচালনা করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, মহিলা রেফারিরা কেন হাফ প্যান্ট পরে ম্যাচ খেলিয়েছেন, এই কারণে পুরো ইরানে ওই ম্যাচের সম্প্রচারে ইচ্ছে করে বিঘ্ন ঘটানো হয়েছে।
তাও যে কোনও ম্যাচ নয়, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ও টটেনহ্যাম হটস্পারের মধ্যে খেলায় মহিলা রেফারি ম্যাচ খেলিয়েছেন। ওই ম্যাচটি ইরানে দেখাতে গিয়ে বারবার সম্প্রচারে সমস্যা করা হয়েছে। পরে জানা গিয়েছে দেশ থেকেই সেন্সর করে কাঁচি চালানো হয়েছে।
ইরানে ফুটবল দারুণ জনপ্রিয়। ঘরে ঘরে ফুটবলপ্রেমীরা রয়েছেন। এরকম একটি ফুটবল প্রিয় দেশে খেলা দেখতে বসে যদি এমন ঘটনা ঘটে, তাতে কী প্রভাব ফেলতে পারে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশের মানুষ এই ঘটনায় হতবাক। ৯০ মিনিটের একটা ম্যাচ সাকুল্যে দেখানো হয়েছে ৫০ মিনিটের মতো।

সোশ্যাল সাইটে এই বিষষটি নিয়ে কথা হচ্ছে। তার চেয়ে বড় কথা, ইরানে মহিলা রেফারিং বেশ জনপ্রিয়। সেই পরিস্থিতিতে মহিলারা কেন হাফ প্যান্ট পরে ম্যাচ খেলাচ্ছেন, এটি নিয়ে কথা হওয়ায় সবাই হতচকিত।
ইরানের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন কুস্তিগির সর্দার পাশাই এ ঘটনায় লজ্জিত। তিনি টুইটারে এর সমালোচনা করে বলেছেন, ‘‘লিঙ্গের ভিত্তিতে এমন হাস্যকর ও দুঃখজনক সিদ্ধান্তে ফিফা কী কোনও প্রতিক্রিয়া ও চরম পদক্ষেপ নেবে না?’’ একটি নারী অধিকার রক্ষাকারী সংস্থার দাবি, ম্যাচের মহিলা রেফারি স্বাভাবিকভাবেই হাফ প্যান্ট পরেছিলেন। আর সেটিই এই সেন্সরের মূল কারণ। এমনকি মহিলা রেফারির উন্মুক্ত পা-ও দেখানো যাবে না, এমনই নির্দেশ ছিল সরকারের তরফে!
সম্প্রচারকারী টেলিভিশন চ্যানেলটি ম্যাচে যখনই মহিলা রেফারিকে দেখানো হয়েছে, তখনই বাইরে ফুটেজ জুড়ে দিয়ে সেটি সেন্সর করেছে। খেলা চলাকালীন ইংল্যান্ডের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানগুলি দেখানো হয়েছে টিভিতে। ম্যাচে কোনও উত্তেজনাময় দৃশ্য না দেখিয়ে সাইটসিন দেখিয়েছে ওই টিভি চ্যানেল সংস্থা!
ইরানের এমন কিছু অবশ্য নতুন নয়। ২০১৮ সালের চ্যাম্পিয়নস লিগের সময় ইরানের রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল ইতালীয় ক্লাব এএস রোমার জার্সিতে থাকা ব্যাজ ঝাপসা করে দিয়েছিল। বার্সেলোনার বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালের সেই ম্যাচে রোমার ব্যাজ ইরানের দর্শকেরা ঝাপসা দেখেছেন, কারণ সেটি ইরানের সরকারের কাছে গ্রহণযোগ্য ছিল না।

Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More