ঘরে বসে আরও দ্রুত কেটে ফেলতে পারবেন ট্রেনের টিকিট, আইআরসিটিসি ই-ওয়ালেট ব্যবহারের ধাপগুলো জেনে নিন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের চোখ রাঙাচ্ছে করোনা। বাড়ছে সংক্রমণ। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে চড়ছে আমজনতার উদ্বেগও। বেশ কিছু রাজ্য ইতিমধ্যে নাইট ফার্ফু জারি করেছে। যান চলাচলেও আনা হয়েছে নিয়ন্ত্রণ।

এই পরিস্থিতিতে ভিন রাজ্য কিংবা জেলায় থাকা মানুষদের অনেকেই ঘরে ফিরতে চাইছেন। এখনই সেই সংখ্যা খুব একটা না বাড়লেও আগামী দিনে অন্য ছবি দেখা যেতেও পারে।

সংক্রমণভীতির জেরে দূরে থাকা অনেকেই ট্রেনের টিকিট বুক করতে লাইনে দাঁড়াতে চাইছেন না। তা ছাড়া গরমে ভিড়ের মধ্যে ঠেলাঠেলি করে টিকিট কাটা বিরক্তিও বটে। তাই গ্রাহকদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে নির্ঝঞ্ঝাটে টিকিট বুক করতে ই-ওয়ালেট পরিষেবা এনেছে আইআরসিটিসি।

এই ওয়ালেটে যে-কেউ টাকা রাখতে পারবেন। তারপর বুকিংয়ের সময় নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ ওয়ালেট থেকে কেটে নেওয়া হবে। গোটা পদ্ধতিই অনলাইনে এবং মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে মেটানো সম্ভব।

প্রথমে ধাপে রয়েছে ভেরিফিকেশন। ই-ওয়ালেট ব্যবহারকারীকে প্যান কিংবা আধার কার্ড দিয়ে ভেরিফিকেশন এবং অথেনটিকেশন সেরে ফেলতে হবে। তারপর নির্দিষ্ট পাসওয়ার্ড কিংবা পিন নাম্বার দেওয়ার পালা। খুলে যাবে অ্যাকাউন্ট। যেখানে বুকিংয়ের সমস্ত তথ্য এবং টিকিট বাতিলেরও সুবিধেও দেওয়া থাকবে।

নীচের পদ্ধতি মেনে আপনি খুব সহজে টিকিট কাটতে পারবেন—

১. প্রথমে আইআরসিটিসি অ্যাকাউন্টে লগ ইন করুন। এর জন্য পাসওয়ার্ড এবং আইডি প্রয়োজন। অ্যাকাউন্ট না থাকলে ‘সাইন আপ’ অপশনে ক্লিক করতে হবে।

২. এরপর ইওয়ালেট সেকশনে গিয়ে ‘প্ল্যান মাই ট্রাভেল’ পেজে ক্লিক করুন।

৩. স্ক্রিনে ‘আইআরসিটিসি ই-ওয়ালেট রেজিস্ট্রেশন’ লিঙ্ক খুলে যাবে।

৪. ভেরিফিকেশনের জন্য আধার কিংবা প্যান কার্ডের নির্দিষ্ট কিছু তথ্য দিতে হবে।

৫. তারপর রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ ৫০ টাকা জমা করুন।

৬. ওয়ালেটকে সক্রিয় করতে ন্যূনতম ১০০ টাকা দিতে হয়। অ্যাকাউন্ট চালু হয়ে গেলে টিকিট বুক করুন। জমা-খরচের হিসেব রাখতে ‘ডিপোজিট হিস্ট্রি’-তে ক্লিক করতে হবে৷ বুকিং বাবদ কত টাকা গেছে এবং কত টাকা জমা রয়েছে, তার সমস্ত তথ্য এখানে পাবেন।

৭. শেষ ধাপে প্রোফাইলের পাসওয়ার্ড দিন। তারপর ‘গো’ অপশনে ক্লিক করলেই টিকিট বুক হয়ে যাবে।

এ তো গেল টিকিট কাটার ফর্মুলা। একইভাবে ই-ওয়ালেটে টাকা সঞ্চয়েরও ব্যবস্থা রয়েছে।

১. প্রথমে আগের মতোই অ্যাকাউন্ট লগ ইন।
২. তারপর অ্যাকাউন্টের ‘আইআরসিটিসি ই-ওয়ালেট ডিপোজিট’-এ ক্লিক করতে হবে।
৩. কত টাকা রাখতে চান, সেটা টাইপ করুন।
৪. কীভাবে টাকা জমা করতে চান, সেই অপশন বেছে নেওয়ার পালা।
৫. এরপরই ওই পরিমাণ টাকা আপনার অ্যাকাউন্টে চলে আসবে।

টাকা জমা এবং টিকিট বুকিং — দু’টো ক্ষেত্রেই কিছু ফি রাখা হয়েছে। তার মধ্যে রেজিস্ট্রেশন ফি ৫০ টাকা (ট্যাক্স ছাড়া) নন-রিফান্ডেবল। মানে সেটা আর ফেরত পাবেন না। এ ছাড়া ট্রানজাকশন ফি ১০ টাকা ধার্য করেছে আইআরসিটিসি কর্তৃপক্ষ।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More