শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৬

ভারতীয় ছাত্রদের আহ্বান ইতালির বিশ্ববিদ্যালয়ের

দ্য ওয়াল ব্যুরো : পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিটে এসে ভারতে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রদের আহ্বান জানাল ইতালির বিশ্ববিদ্যালয়। তার নাম পলিটেকনিকো মিলানো। ১৮৬৩ সালে ওই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। সারা বিশ্বে ওই ধরনের চার হাজার ইউনিভার্সিটির মধ্যে পলিটেকনিকো মিলানোর স্থান ১৭। সেখানে ছাত্রের সংখ্যা ৪২ হাজার।

বিশ্ব জুড়ে বাড়ছে অটোমোবাইল শিল্প। সেই প্রেক্ষিতে ভারতে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠরত মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং-এর ফাইনাল ইয়ারের ছাত্রদের থেকে অ্যাপ্লিকেশন চাইছে পলিটেকনিকো মিলানো। ভারতীয় ছাত্ররা সেখানে গিয়ে পিএইচডি করতে পারবেন। পরে সেখানে চাকরিও পেতে পারেন।

আপাতত বেশ কয়েকজন ভারতীয় ছাত্র ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের গ্রাউন্ড ভেহিকল ইঞ্জিনিয়ারিং শাখার অধ্যাপক গিয়ানপিয়ারো মাসতিনু জানিয়েছেন, তাঁরা এখন বিভিন্ন আইআইটি পরিদর্শন করবেন। তাঁদের আশা এদেশের বহু ছাত্রই উচ্চশিক্ষার জন্য ইতালিকে বেছে নেবে।

দু’দিনের বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিটে ইতালীয় প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসাবে অধ্যাপক মাসতিনু ভারতে এসেছেন। তিনি লম্বার্ডি মোবিলিটি ক্লাস্টারের সেক্রেটারি জেনারেল তথা ক্লাস্টার ম্যানেজার। তাঁর কথায়, ইতালিতে গাড়ি শিল্পের দ্রুত বৃদ্ধি হচ্ছে। বিশেষত লম্বার্ডি অঞ্চলে ওই শিল্পের বিকাশ হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। সেখানে প্রথম সারির কয়েকটি সংস্থা উন্নত মানের গাড়ির যন্ত্রাংশ তৈরি করে। ইতালিতে রয়েছে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ ছ’টি গাড়ি নির্মাতা সংস্থা। তারা হল ল্যামবোরঘিনি, ফিয়াট, আলফা রোমিও, মাসেরাতি, ল্যানসিয়া এবং ফেরারি।

লম্বার্ডি মোবিলিটি ক্লাস্টারস জানায়, পশ্চিমবঙ্গ সরকার বিজিবিএসে তাদের নানা প্রকল্পের কথা বলেছে। লজিস্টিকস, ইনটেলিজেন্ট ট্রান্সপোর্ট সিস্টেম, গণ পরিবহণ এবং ম্যানুফ্যাকচারিং শিল্পে সরকার যে প্রস্তাবগুলি দিয়েছে, তা তারা বিবেচনা করে দেখবে।

৭ ও ৮ ফেব্রুয়ারি কলকাতায় বেঙ্গল গ্লোবাল বিজনেস সামিট হয়। তাতে দেশবিদেশের শিল্পপতিরা অংশগ্রহণ করেন। সম্মেলনের প্রথম দিন থেকেই শিল্পপতিরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসা করেছেন। দ্বিতীয় দিনে মুখ্যমন্ত্রী জানান, রাজ্যে ২ লক্ষ ৮৪ হাজার ২৮৮ কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রস্তাব এসেছে। তাতে আট থেকে ১০ লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থান হবে। যে সব সংস্থা পশ্চিমবঙ্গে বিনিয়োগে উৎসাহ দেখিয়েছে, তাদের মধ্যে আছে মুকেশ অম্বানির রিলায়েন্স গোষ্ঠী, গ্রেট ইস্টার্ন এনার্জি কর্পোরেশন লিমিটেড, জিন্দাল স্টিল ওয়ার্ক, আইটিসি ফুড প্রসেসিং, কোকা কোলা ও রুদ্র চ্যাটার্জি হেলথ সিটি প্রকল্প।

 

Shares

Comments are closed.