এনকাউন্টারে খতম বুরহান ওয়ানির ভাই ইমতিয়াজ সহ ৭ জঙ্গি! কাশ্মীরের ত্রাল ও সোপিয়ানে পরিস্থিতি উত্তপ্ত

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কিছুদিন শান্ত থাকার পর ফের জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল উপত্যকা। ত্রাল এবং সোপিয়ানে দু’টি পৃথক ঘটনায় মোট সাত জন জঙ্গি খতম হয়েছে। তাদের মধ্যে বুরহান ওয়ানির ভাই এবং ঘাজোয়াত উল হিন্দের চিফ কমান্ডার ইমতিয়াজ শাহ রয়েছে বলেও সূত্রের খবর।  এ ছাড়া এনকাউন্টারে বেশ কয়েকজন নিরাপত্তারক্ষীর আহত হওয়ার খবর মিলেছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সোপিয়ানে গুলির লড়াইয়ে নিকেশ হয় পাঁচ জঙ্গি৷ চার জন জওয়ানও গুরুতর আহত হন। এদিন গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সোপিয়ানের জান মহল্লায় অভিযান চালায় যৌথ বাহিনী। জঙ্গিঘাঁটি ঘিরে শুরু হয় তল্লাশি৷ তখনই লুকিয়ে থাকা জঙ্গিরা এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। পাল্টা আঘাত করে বাহিনীও। তাতেই মারা যায় ওই পাঁচ জন জঙ্গি। আহত হন সেপোই রামদেব, দ্রাগ সিং এবং রাজ কুমার নামে তিন নিরাপত্তারক্ষী। পরে আরও একজনের জখম হওয়ার খবর মেলে।

বৃহস্পতিবারের লড়াই শুক্রবার সকালে থেমে যায়। কিন্তু আজ সেনাবাহিনী জানতে পারে, অন্তত একজন জঙ্গি এখনও স্থানীয় একটি মসজিদে লুকিয়ে রয়েছে। সে তাড়া খেয়ে সেখানে আশ্রয় নিয়েছিল বলে অনুমান। তাকে বের করে আনতে এক জঙ্গির ভাই এবং মসজিদের ইমামকে পাঠানো হয়েছে। লুকিয়ে থাকা জঙ্গি আনসার ঘাজওয়াত উল হিন্দের নেতা বলে খবর।

বহুদিন ধরেই পাকিস্তানের জইশ-ই-মহম্মদের সঙ্গে একযোগে উপত্যকায় সন্ত্রাস চালাচ্ছে এই সংগঠন। ঘাজওয়াতের সুপ্রিমো বুরহান ওয়ানি ২০০৬ সালের একটি এনকাউন্টারে মারা যান। এতদিন সেনারা তার ভাই ইমতিয়াজকে ধরতে তল্লাশি চালাচ্ছিল। এদিনের অপারেশনে ইমতিয়াজ নিহত হয়েছে বলে ভারতীয় সেনার তরফে জানানো হয়েছে। গোয়েন্দাদের দাবি, দু’বছর আগে ইমতিয়াজ জঙ্গি কার্যকলাপ শুরু করে। এমনকী আনসার গাজওয়াতুল হিন্দের প্রতিষ্ঠাতা জাকির মুসার সঙ্গেও হাত মেলায় সে।

অন্যদিকে আজ সকালে অবন্তীপোরার ত্রালের নওবাগ অঞ্চলে সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াই শুরু হয়৷ নিকেশ হয় দুই জঙ্গি। কাশ্মীর পুলিশের তরফে জানা গিয়েছে, এনকাউন্টার আপাতত শেষ। চলছে তল্লাশি অভিযান। জঙ্গিদের দেহ উদ্ধারের পাশাপাশি বেশ কয়েক রাউন্ড পিস্তল ও কার্তুজ উদ্ধার হয়েছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More