সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে লড়তে যাওয়া বিরাট ভুল, বললেন ইমরান

দ্য ওয়াল ব্যুরো : আমেরিকায় ৯/১১-র জঙ্গি হামলার পরে বিশ্ব জুড়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল পাকিস্তান। যদিও পরে আন্তর্জাতিক মহল থেকে বলা হয়েছিল, মুখে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করার কথা বললেও বাস্তবে পাকিস্তান জঙ্গিদের মদত দিয়ে চলেছে। কিন্তু পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এবার নিউ ইয়র্কে বসেই বললেন, আমেরিকার সঙ্গে হাত মিলিয়ে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে যাওয়া বিরাট ভুল হয়েছিল।

২০০১ সালে নিউ ইয়র্কে ও ওয়াশিংটনে জঙ্গি হানার পরে পাকিস্তানের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশারফ সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে যোগ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। কিন্তু ইমরান খানের বক্তব্য, আমাদের আগের সরকার ভুল করেছিল। যে প্রতিশ্রুতি রক্ষা করা যাবে না, তা দেওয়া উচিত নয়।

২০০১ সালে আফগানিস্তানে আমেরিকা আক্রমণ করার আগে মাত্র তিনটি দেশ তালিবান সরকারকে স্বীকৃতি দিয়েছিল। তার অন্যতম হল পাকিস্তান। আফগানিস্তানে জেহাদিদের উত্থানের পিছনে পাকিস্তানের ভূমিকা স্বীকার করে নিয়েছেন ইমরান। তিনি বলেন, বিংশ শতাব্দীর আটের দশকে সোভিয়েত রাশিয়া আফগানিস্তানে হানা দেয়। আমেরিকার সহায়তায় পাকিস্তান তখন আফগানিস্তানে প্রতিরোধ আন্দোলন গড়ে তুলতে সাহায্য করে। সোভিয়েতের বিরুদ্ধে জেহাদ চালানোর জন্য আইএসআই বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে আসা জেহাদিদের প্রশিক্ষণ দেয়।

এরপরে ইমরান সরাসরি বলেন, আমরাই সোভিয়েতের বিরুদ্ধে আফগান জঙ্গি গোষ্ঠীগুলিকে তৈরি করেছিলাম। তাঁর কথায়, জেহাদিরা একসময় ছিল হিরো। ১৯৮৯ সালে সোভিয়েত আফগানিস্তান ছেড়ে চলে গেল। আমরা আর ওই জেহাদি গোষ্ঠীগুলি রয়ে গেলাম।

৯/১১-র কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা তখন ফের আমেরিকার সঙ্গে হাত মেলালাম। যারা সোভিয়েতের বিরুদ্ধে লড়াই করেছে, তাদের বোঝানো হয়েছিল, বিদেশি শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করা মানে জেহাদ। কিন্তু আফগানিস্তানে যখন আমেরিকা হানা দিল, তখন জেহাদি গ্রুপগুলিকে বলা হল সন্ত্রাসবাদী।

ইমরানের মতে আফগানিস্তানে আমেরিকার আক্রমণের সময় পাকিস্তানের নিরপেক্ষ থাকা উচিত ছিল। ইমরানের মতে, যুদ্ধ করে আফগান সমস্যার সমাধান হবে না। তিনি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বলেছেন, আফগানিস্তানে ফের আলোচনা শুরু করুন।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More