‘বিকিরণে ক্ষতি মানুষ, গাছপালা, প্রাণীকূলের’, চাই না ৫জি প্রযুক্তি, মামলা জুহির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রেডিওফ্রিকোয়েন্সি রেডিয়েশন (আরএফ) বিকিরণের ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্কে বেশ কিছুদিন ধরেই মানুষকে সচেতন করছেন জুহি চাওলা। বলিউডের নয়ের দশকের একাধিক হিট ছবির নায়িকা  ভারতে ৫জি মোবাইল প্রযুক্তি চালু করার বিরুদ্ধে মামলা  করেছেন। যদিও মামলার শুনানি থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়ে দিল্লি হাইকোর্টের আরেক বেঞ্চে সেটি পাঠিয়ে দিয়েছে বিচারপতি সি হরিশঙ্করের বেঞ্চ। ২ জুন তার শুনানি।

জুহির মুখপাত্র এক বিবৃতিতে বলেছেন, ৫জি প্রযুক্তি মানুষ ও প্রতিটি জীবিত প্রাণীর কাছে নিরাপদ, এটা নিশ্চিত করে বলতে ও আরএফ বিকিরণের স্বপক্ষে তাদের গবেষণা রিপোর্ট পেশ করতে যাতে তার হয়ে ওকালতি করা লোকজনকে নির্দেশ দেওয়া হয়, সেজন্যই তাঁরা মামলা করেছেন। এখনও না হয়ে থাকলে ৫জি প্রযুক্তি নিয়ে বেসরকারি সংস্থাকে বাইরে রেখে উপযুক্ত গবেষণা হওয়া উচিত বলেও অভিমত জানান তিনি। তাঁদের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ৫জি প্রজন্মের প্রযুক্তি চালু করার দৌড়ে নেমে আমাদের দেশের নজর হয়তো বর্তমান ও ভবিষ্যত্ প্রজন্মের ওপর তার বিপজ্জনক দিকটি বিবেচনা করা থেকে ঘুরে গিয়েছে।  কোনও মানুষ, প্রাণী, পাখী, পোকামাকড়, গাছ দিনে ২৪ ঘন্টা, বছরে ৩৬৫ দিন বিকিরণের হাত থেকে রক্ষা পাবে না, যা এখনকার ১০ থেকে ১০০ গুণ বেশি বিপজ্জনক হয়ে উঠবে। ৫জি প্ল্যান মানুষের ওপর মারাত্মক, অনিবার্য প্রভাব ফেলবে, গোটা বিশ্বের ইকো সিস্টেমেরও স্থায়ী ক্ষতি করবে। এব্যাপারে অসুস্থ, জখম লোকজনের থেকে পাওয়া  তথ্যপ্রমাণ, ব্যাপক বিচিত্র গাছপালা, প্রাণীদের কোষ, ডিএনএ ও অর্গান সিস্টেমের ক্ষতি করার পরীক্ষামূলক তথ্যপ্রমাণ,সব একত্র করে খতিয়ে  দেখলে উপসংহার এটাই বেরয় যে, ক্যান্সার, হার্টের অসুখ, ডায়াবেটিসের মতো আধুনিক সভ্যতার বড় রোগগুলি হয় ইলেকট্রোম্যাগনেটিক দূষণ থেকেই।   ২০১৯ এর ২০ মার্চ তথ্য জানার অধিকার আইনে দায়ের হওয়া প্রশ্নে বিজ্ঞান ও ইঞ্জিনিয়ারিং রিসার্চ বোর্ড থেকে লিখিত ভাবে কেন্দ্রীয়  টেলিযোগাযোগমন্ত্রক জানতে পারে, মানুষ, প্রাণী, পাখী, গাছপালা ও অন্য সব জীবিত প্রাণের ওপর ২জি, থ্রিজি, ফোরজি, ৫জি সেলুলার টেকনোলজির প্রভাব নিয়ে কোনও পরীক্ষানিরীক্ষাই করা হয়নি।

তাঁরা ওয়ারলেস কমিউনিকেশন সহ প্রযুক্তিগত উন্নয়ন ব্যবহারের বিরোধী নন, তবে জুহি বলেছেন, আমরা লাগাতার দ্বিধা, সংশয়ে রয়েছি কেননা ওয়ারলেস গ্যাজেট, নেটওয়ার্ক সেল টাওয়ার থেকে নির্গত রেডিওফ্রিকোয়েন্সি রেডিয়েশন নিয়ে আমাদের নিজস্ব গবেষণার ফল দেখে এটা বিশ্বাস করার মতো যথেষ্ট কারণ আছে যে, বিকিরণ মানুষের শরীর-স্বাস্থ্য ও সুরক্ষার সামনে বিরাট ক্ষতিকর, বিপদ।

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More