সুস্থ হয়েই আবেগঘন বার্তা কপিলের: মনে করলেন বিশ্বজয়ী দলের সতীর্থদের, বললেন আগামী বছর ভাল কাটবে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : হরিয়ানা হ্যারিকেনের এই ছবিটাই যেন দেখতে চেয়েছিল কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারিকা। সেই সদাহাস্যমুখ, যেখানে তিনি পামোলিভ কা জবাব নেহি-র ঢঙে নিজের জগতে মেজাজে বিচরণ করছেন।

কপিল দেব যেদিন বুকে ব্যথা নিয়ে দিল্লির হাসপাতালে ভর্তি হলেন, সেদিন থেকেই জনমানসে কৌতূহল ও আবেগ মিলেমিশে একাকার হয়ে গিয়েছিল। সারা ভারত তো বটেই, বিশ্বের কপিল গুণগ্রাহীরা প্রার্থনা শুরু করেছিলেন, তিনি যেন ফের স্বভাবসিদ্ধ ঢঙে মাঠে ফিরে আসেন।

এলেনও তাই। যাঁরা কপিলকে খুব ভাল চেনেন, তাঁরা বলেই ছিলেন, আমাদের কপিল হারতে পারেন না, তিনি ফিরবেন রাজার মতোই।

ফিরলেনও তাই। বৃহস্পতিবার তিনি তাঁর দিল্লির বাসভবনে থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন, তাতে বিশ্বশ্রেষ্ঠ অলরাউন্ডারকে বেশ খোজমেজাজে দেখা গিয়েছে। তিনি বেগুনি রংয়ের ফুলহাতা একটি শার্ট পরিহিত অবস্থায় বলেছেন, ’’আবহাওয়া আজ বেশ ভাল ও মনোরম, আমি উদগ্রিব হয়ে রয়েছি আপনাদের সঙ্গে দেখা করার জন্য, যাঁরা আমাকে নিয়ে প্রার্থনা করেছেন, যাঁদের ভালবাসায় ফিরে এসেছি।’’

কপিল অবশ্য শুরু করেছেন ১৯৮৩ সালের বিশ্বজয়ী দলের সতীর্থদের শুভেচ্ছা জানানো দিয়েই। বেশ বোঝা গিয়েছে এবার তিনি যখন হাসপাতালে হৃদযন্ত্রের সমস্যার জন্য ভর্তি ছিলেন, ওই সতীর্থরা তাঁর খোঁজ নিয়েছিলেন। সেই আবেগ থেকেই হয়তো তিনি এমনটা বলেছেন।

শুধু তাই নয়, কপিল আরও জানিয়েছেন, ‘‘আমি অতি দ্রুত আপনাদের সঙ্গে মিলিত হবো। আমি নিজেও সেই নিয়ে উদগ্রিব হয়ে রয়েছি। আমরা একেবারে বছরের শেষে এসে হাজির হয়েছি, আমার মনে হয় সামনের বছর দারুণভাবে শুরু হবে। সবাইকে আমার ভালবাসা জানাই।’’

কপিলকে হাসপাতাল থেকে অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি করেই ছাড়া হয়েছে। তাঁর বুকে বসেছে স্টেইনও। তবে তিনি যে এই লড়াইয়ে দুর্দান্তভাবে পাশ করেছেন, সেটিও বোঝা গিয়েছে তাঁর চওড়া হাসিতে। ৬১ বছর বয়সী মহাপ্রাক্তন তথা ৪৩৪টি টেস্ট উইকেটের মালিক ক্রিকেট ছাড়া গলফের মাঠে সময় কাটাতে ভালবাসেন।

আবারও যে তিনি খেলার মূলধারায় ফিরবেন, সেটি যে সময়ের অপেক্ষা, তা কিংবদন্তির শরীরী ভাষাতেই প্রমাণ মিলেছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More