ক্লাস থ্রির সাইকেল চোর ধরা পড়ল পুলিশের হাতে, সাজায় মিলল নতুন সাইকেল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একরত্তি ছেলের সাইকেল চালানোর খুব শখ। সদ্য ক্লাস থ্রিতে উঠেছে সে। একটা সাইকেল এবার না হলেই নয়। কিন্তু পরিবারের সেই সামর্থ্য কই! ছেলে জানে যে বাড়িতে বায়না করে লাভ নেই। তবু অদম্য ইচ্ছের কাছে হার মানা দায়।

শেষমেষ পাশের বাড়ির সদ্য কেনা সাইকেলটা নিয়েই চম্পট দিয়েছিল সে। তারপর হইহই রইরই কান্ড! থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন পড়শী। প্রতিবেশীর ছেলেটা তাদের সাইকেল চুরি করে পালিয়েছে।

পুলিশ হাতে নাতে পাকড়াও করেও ফেলল ছোট্ট সাইকেল চোরকে। কতটা কঠোর সাজা মিলেছিল তারপর? শোনাই যাক।

কেরলের শোলায়ুর অঞ্চলে সম্প্রতি এক চমকপ্রদ সাইকেল চুরির বৃত্তান্ত শোরগোল ফেলে দিয়েছে। চোরের উচিত শাস্তি হওয়ার কথা, এক্ষেত্রেও তাই-ই হয়েছিল। গোটা ঘটনাটি ফেসবুকে শেয়ার করেছেন লতিফ আত্তাপাদি নামের এক স্থানীয় সাইকেল বিক্রেতা। তিনি জানিয়েছেন, হঠাৎ একদিন শোলায়ুর থানার দারোগা তাঁর দোকানে এলেন সাইকেল কিনতে। লতিফ তো অবাক, “কার জন্য সাইকেল কিনবেন বড়বাবু?” জিজ্ঞেস করতেই দারোগা বিনোদ কৃষ্ণ হাসতে হাসতে জানালেন ” এক ক্ষুদে সাইকেল চোরের জন্য। ছেলেটার যে একটা সাইকেল না হলেই নয়!”

এরপর কথা প্রসঙ্গে দারোগার থেকে সবটুকুই শোনেন লতিফ। অবস্থার ফেরে শৈশবের ছোট্ট ছোট্ট ইচ্ছে অপূর্ন থেকে যায়। গল্পের নায়ক ক্ষুদে সাইকেল চোরের আর দোষ কই! দোষ তো ভাগ্যের। বিনোদ কৃষ্ণ জানিয়েছেন তাঁর শৈশবও ছিল অভাব অনটনে ভরা। তিনি এখন উপার্জনক্ষম, অভিযুক্ত ছেলেটির মধ্যে যেন নিজেরই ছোটবেলা দেখতে পান বিনোদ। এটুকু হয়ত পারেন, একটা সাইকেলই তো চায় সে! তিনি নিজেই কিনে উপহার দিতে চান ছোট্ট ছেলেটাকে।

সবটা শুনে অভিভূত লতিফ বলেন, আপনি নিয়ে যান সাইকেল। দাম দিতে হবে না। আরও বলেন, এমন হৃদয়বান দারোগার উপস্থিতি শোলাযুরকে ধন্য করেছে। লতিফের দোকানেই এসেছেন যখন, লতিফ এইটুকু করতেই পারেন। তিনিও তো দারিদ্রের চরম সীমা পেরিয়েছেন এককালে।

অতঃপর, অভিযোগকারী প্রতিবেশীর সঙ্গে কথা বলে দারোগা বিনোদ সবটা মিটমাট করে দিলেন। আর চোরকে দিলেন ঝকঝকে নতুন সাইকেল। ছোট্ট ছেলের মুখের অনাবিল হাসিটুকুই পাওনা ছিল দারোগার। এমনটাই ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছেন লতিফ।

লতিফের সেই পোস্ট নিমেষে ভাইরাল হয়ে যায়। শোলায়ুর সাইকেল চুরি বৃত্তান্তে নেটিজেনরা দারোগা বিনোদকেই ধন্য ধন্য করেন। এখনও অবধি ৭০,০০০ লাইক আর ২০,০০০বারেরও বেশি শেয়ার করা হয়েছে পোস্টটি।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More