লাগাতার ঊর্ধ্বমুখী কোভিড ১৯ সংক্রমণ, ‘প্রতীকী’ কুম্ভমেলার আবেদন প্রধানমন্ত্রীর, সাড়া সাধুদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হরিদ্বারে চলতি কুম্ভমেলায় লাগামছাড়া ভিড় থেকে করোনা সংক্রমণ ছড়ানোর খবরের পরিপ্রেক্ষিতে নানা মহলের প্রশ্ন, নানা রাজ্যে যখন সংক্রমণের রাশ টানতে কার্ফু সহ বিধিনিষেধ জারি হচ্ছে, তখন কেন এত মানুষ জমায়েত হওয়ার অনুমতি হরিদ্বারে, বিশেষ করে যখন একাধিক সাধু করেনা পজিটিভ হয়েছেন, এমনকী দুজন শীর্ষ সাধু বা মহামন্ডলেশ্বরের মৃত্যু পর্যন্ত হয়েছে! এবার সরাসরি না বললেও কার্যত পরোক্ষে কুম্ভমেলা বন্ধ রাখতে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।  স্বামী অবধেশানন্দ গিরির সঙ্গে ফোনে কথা বলার পর তিনি ট্যুইট করেছেন, করোনাভাইরাস অতিমারীর সঙ্গে লড়াইয়ে ভারতকে সাহায্য করতে এখন শুধুই ‘প্রতীকী’ কুম্ভমেলা হওয়া উচিত।

প্রধানমন্ত্রী লেখেন, আচার্য স্বামী অবধেশানন্দ গিরিজির সঙ্গে ফোনে কথা বলেছি। সব সাধুসন্তের শরীর স্বাস্থ্যের খবর নিয়েছি। সব সাধুই গোটা অনুষ্ঠান মসৃণভাবে সম্পন্ন করতে প্রশাসনকে সহায়তা করছেন। তাঁদের সবাইকে আমার ধন্যবাদ। দুটো শাহি স্নান যখন হয়েই গিয়েছে, তখন প্রত্যেককে  আবেদন করছি, করোনাভাইরাস সঙ্কটের জন্য কুম্ভমেলা শুধুই প্রতীকী হোক। এতে ভারতের করোনা মোকাবিলার লড়াই জোরদার হবে।

প্রধানমন্ত্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে অবধেশানন্দ ব্যাপক সংখ্যায় স্নানের জন্য কুম্ভমেলায় না আসতে সবাইকে আবেদন করে কোভিড-১৯ আচরণবিধি পালন করতে বলেছেন।

তিনি ট্যুইট করেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানকে সম্মান জানাই। জীবনকে রক্ষা করে একটা বিরাট সদ গুণ। পরিস্থিতি বিচার করে আমরা জনসাধারণকে বলছি, বেশি লোক স্নানের জন্য আসবেন না, নিয়মবিধি মেনে চলুন।

এক সপ্তাহের মধ্যে কুম্ভমেলায় প্রায় ২ হাজার লোক কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছেন। গত ১২ ও ১৪ এপ্রিল সোমবতী অমাবস্যা ও মেষ সংক্রান্তি উপলক্ষ্যে যাঁরা শাহি স্নানে সামিল হয়েছেন, তাঁদের বেশিরভাগকেই কোভিড-১৯ আচরণবিধির থোড়াই কেয়ার করতে দেখা গিয়েছে। মাস্ক পরা, সামাজিক দূরত্ববিধি মানার মতো বিধি লঙ্ঘন করে কাতারে কাতারে মানুষ জড়ো হয়েছেন কুম্ভে। জনসমুদ্রে পরিণত হয় হরিদ্বার। এর মধ্যে কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলে দেওয়ার মতো তথ্য, গত ২৪ ঘন্টায় দেশে নতুন করোনা সংক্রমণের খবর এসেছে ২ লক্ষ ১৭ হাজার। সব মিলিয়ে গত ১ এপ্রিল থেকে নতুন সংক্রমণ হয়েছে ২০ লাখের  ওপর।

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More