দমননীতির বদলে উন্নয়ন, কেরলে জনসভায় বললেন মোদী

দ্য ওয়াল ব্যুরো : লাঠির বদলে ফুল। অত্যাচারের বদলে উন্নয়ন। বাংলায় এসে পরিবর্তনের ডাক দেওয়ার পর কেরলেও শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর গলায় একই সুর শোনা গেল। ৬ এপ্রিল দক্ষিণের ওই রাজ্যে নির্বাচন হবে। তার আগে ক্ষমতাসীন পিনারাই বিজয়নের সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন নরেন্দ্র মোদী। সাফ জানালেন, কেরলের জনতা সরকারি দমননীতির উপর আস্থা হারাচ্ছেন। বদল চাইছেন তাঁরা। কেরলবাসীকে উন্নয়নের সুফল জোগাতে পারে একমাত্র বিজেপি সরকার।

এদিন পত্তনমতিট্টার একটি জনসভায় আক্রমণাত্মক মেজাজে বক্তব্য পেশ করেন মোদী। তিনি বলেন, “একটা সময় আসে যখন সবাই অত্যাচারী শাসকের কানে একসুরে একই বার্তা পৌঁছে দিতে চায়। কেরলবাসীর মধ্যে এখন আমি ঠিক সেই মেজাজই লক্ষ করছি। রাজ্যবাসী বিজেপির উন্নয়নের ইস্তেহার দেখেছেন। তাঁরা অবশ্যই আমাদের উপর আস্থা রাখতে চাইছেন।”

‘মোটরম্যান’ নামে পরিচিত বিখ্যাত ইঞ্জিনিয়ার ই শ্রীধরন সম্প্রতি কেরলে বিজেপির প্রচার অভিযানের অন্যতম মুখ হয়ে উঠেছেন। এই বিষয়টিকে সামনে এনে মোদী যোগ করেন, “আমাদের দল রাজনীতিতে যোগ্য শিক্ষিত মানুষজনকে আনতে চায়। শ্রীধরন সকলের জন্য অনেক কিছু করেছেন। এবার তিনি আরও বেশি সামাজিক কাজ করার জন্য বিজেপি-কে বেছে নিয়েছেন।”

এরপর ক্ষমতাসীন এলডিএফ ও ইউডিএফ জোটকে এক হাত নিয়ে মোদীর হুঁশিয়ারি, এই গোষ্ঠী আদতে রাজ্য জুড়ে হিংসা আর অত্যাচারের রাজনীতি করছে। ফলে কেরলের সম্মান নষ্ট হয়েছে। বাদ যায়নি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলিও। ভাষণের শেষে তিনি বলেন, “আইয়াপ্পার ভক্তদের সবসময় ফুল দিয়ে সম্মান জানানো উচিত, লাঠি দিয়ে নয়। তাঁদের কী দোষ? তাঁরা কি অপরাধী?”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More