৪৭-এও ফিট অ্যান্ড ফাইন! পছন্দের জলখাবারই কি এই ‘নো এজ’ লুকের মূলে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কবেই পেরিয়েছেন ৪০এর কোটা! এই ৪৭ এও ফ্যানেদের পালস রেট বাড়িয়ে চলেছেন মালাইকা অরোরা। আসলে নিজের ফিটনেস নিয়ে কোনওরকম সমঝোতায় যেতে চাননা মালাইকা। সকালে থেকে রাত পর্যন্ত নিয়ম মেনে চলেন। শরীরচর্চা থেকে ডায়েট, সবতেই কড়া নজর তাঁর।

বি-টাউনে তাঁর ফিটনেস নিয়ে চর্চা সবসময়েই তুঙ্গে। আমাদের সারাদিনকে সতেজ রাখতে, তিনি কিছু টিপসও দিয়েছেন। আর সবার আগে, সবথেকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন সকালের জলখাবারের ওপর।

ইনস্টাগ্রামে মালাইকাকে দেখা গেছে শারীরিক সুস্থতা, স্বাস্থ্যকর ডায়েট এবং শরীরচর্চা নিয়ে সরব হতে। তিনি সম্প্রতি তাঁর সকালের জলখাবারের ছবি ভাগ করে নিয়েছেন ফ্যানেদের সঙ্গে। তাঁর জলখাবারের মধ্যে যেমন কিছু পুষ্টিকর খাবার আছে তেমনই রকমারি টাটকা ফলও রয়েছে। গোলাপি রঙের ড্রাগন ফল থেকে চেরি ফল সবকিছুই রয়েছে তাঁর খাবারের তালিকাতে। ‘ফ্রুট ডিলাইট’ ক্যাপশন দিয়ে এই ছবি পোস্ট করেন মালাইকা।

ড্রাগন ফ্রুট খাওয়া শরীরের জন্যে ভীষণই ভাল। কারণ এতে রয়েছে ফাইবার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আর ভিটামিন সি। যা কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে, আর শরীরকে সুস্থ রাখে।

সকালে ঘুম থেকে উঠেই গরম জলে মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে খাওয়ার কথা বলেছেন মালাইকা। আবার জলখাবারে শুধু ফল নয়, ফলের সঙ্গে ডিমের সাদা অংশটা, টোস্ট , সবজি খাওয়ার ওপরেও জোর দিয়েছেন। লাঞ্চে প্রোটিন আর শর্করা জাতীয় খাবারকে নিজের ডায়েট চার্টে রেখেছেন মালাইকা। ভাত বা রুটি, ডাল, সবজি আর মাছ কিংবা চিকেন, তিনি খান দুপুরের খাবারে। রাতের ডিনারও তিনি তাড়াতাড়ি করেন, বেশি রাত করেননা। হালকা স্যুপ আর স্যালাড, ডিনার বলতে এটুকুই।

শুধু খাওয়া নয়, এরসঙ্গে শরীরচর্চাও রয়েছে। জিমে মালাইকা অনেকটাই সময় দেন। জিমের পর কলা, প্রোটিনসেক খান।

কিছুদিন আগেই মালাইকা আক্রান্ত হয়েছিলেন কোভিডে, বর্তমানে সুস্থ থাকলেও এখন তাঁর কাছে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ হল নিজের ইমিউনিটি পাওয়ারকে বাড়িয়ে তোলা। তাই সবকিছুর মধ্যেও প্রচুর পরিমাণে জল আর ডাবের জল খেতে কিন্তু ভোলেননা ৪৭এর সুন্দরী!

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More