শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৬

কেন্দ্র-রাজ্য চাপানউতোরের জের? মমতার শিল্প সম্মেলনে থাকছেন না কোনও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এ বার তো প্রথম নয়! ২০১৫ সাল থেকেই রাজ্যের ভাবমূর্তি বিশ্বের শিল্পমহলের কাছে তুলে ধরতে বাণিজ্য সম্মেলন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যে লক্ষ্মী আনার লক্ষ্যে বিষ্যুদবার থেকেই শুরু হচ্ছে সেই সম্মেলন। কিন্তু এ বারই প্রথম সেখানে থাকছেন না কোনও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

এর আগে এমনটা কখনও হয়নি। কোনও বার এসেছেন অরুন জেটলি, কখনও এসেছেন সুরেশ প্রভু। কিন্তু এ বার কেউ আসছেন না বলেই খবর বুধবার সন্ধে পর্যন্ত। এমনিতেই কেন্দ্রে-রাজ্য চাপানউতোর তুঙ্গে।

পর্যবেক্ষকদের মতে, সিবিআই-রাজীব কুমার যুদ্ধ এখন জাতীয় ইস্যু। রাজনৈতিক উত্তাপের কারণেই কোনও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মমতার শিল্প সম্মেলনে আসছেন না বলেই মত তাঁদের।

গোটা কলকাতা ছেয়ে গিয়েছে ‘বেঙ্গল মিনস বিজনেস’-এর হোর্ডিং-এ। বিশ্ববাংলা কনভোকেশন সেন্টার এবং নিউটাউনের ওই এলাকায় এখন সাজোসাজো রব। বুধবার নবান্ন থেকে বেরনোর সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, পৃথিবীর ৩৬টি দেশের প্রতিনিধিরা আসবেন এই সম্মেলনে যোগ দিতে। অনিল আম্বানি এবং আদানি গ্রুপের শীর্ষ কর্তারাও থাকবেন বলে জানিয়েছেন মমতা। গতবছর লগ্নি আনতে ইতালি সফরে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এ বার সেখান থেকে ৩০-এর বেশি প্রতিনিধি বিজিবিএস-এ যোগ দিচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে।

ইদানীং গুজরাট মডেলের বারবার সমালোচনা শোনা গিয়েছে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর গলায়। এ দিনও বলেন, “গুজরাটে যত বিনিয়োগ হয়েছে বলে ওরা দাবি করে, খোঁজ নিয়ে দেখুন ততটা কিন্তু হয়নি।” সেই সঙ্গে তাঁর দাবি, “গত চার বছরে ১০ লক্ষ কোটি টাকার বেশি বিনিয়োগের প্রস্তাব এসেছে। যার মধ্যে ৫ লক্ষ কোটি টাকার বেশি বিনিয়োগ হয়েছে।”

Shares

Comments are closed.