ঘর জ্বালানো, পর ভোলানো প্রধানমন্ত্রী, ওষুধ সংকট নিয়ে মোদীকে আক্রমণ মমতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কোভিডের ওষুধ সংকট নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ শানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন মুর্শিদাবাদের সভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “কোভিডের ৬৪ শতাংশ ওষুধ বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে। আর এখন ভাল মানুষ সেজে বলছে খোলা বাজার থেকে রাজ্যগুলো কিনে নিতে পারে। খোলাবাজারে ওষুধ আছে কোথায়? সব তো বিদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে। ঘর জ্বালানো পর ভোলানো প্রধানমন্ত্রী।”

মমতা এদিন মুর্শিদাবাদের সভা থেকে দাবি করেন, কেন্দ্রীয় সরকারকে সমস্ত বন্দোবস্ত করতে হবে। তাঁর অভিযোগ, ছমাস ধরে করোনা ছিল না। সেই সময়ে যদি কেন্দ্রীয় সরকার সবাইকে ভ্যাকসিন দেওয়ার বন্দোবস্ত করত তাহলে আজকে এই অবস্থা হতো না। তা হয়নি বলেই আজকে কোভিড সংক্রমণের এই ভয়াবহ অবস্থা বলে দাবি মমতার।

কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিন নিয়ে দুটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। এক, প্রস্তুতকারী সংস্থার থেকে রাজ্যগুলো সরাসরি ভ্যাকসিন কিনতে পারবে। এবং দুই, আগামী ১ মে থেকে ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে সকলকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। যদিও ভ্যাকসিনের সংকট দেখা দিয়েছে। জেলায় জেলায় কোভিড টিকাকরণ সেন্টারে লম্বা লাইন। ভ্যাকসিন না পেয়ে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন সাধারণ মানুষ।

কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুশীল চন্দ্র। অন্যতম নির্বাচন কমিশনার রাজীব কুমারও কোভিড পজিটিভ। নির্বাচন সদন সূত্রে বলা হয়েছে আপাতত এই দুজনই বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন। তাঁরা ঘরে থেকেই ভোটের কাজ তত্ত্বাবধান করবেন। এদিন তা নিয়েও কটাক্ষ করেন মমতা। বলেন, বাড়ি থেকে কাজ করা মানে তো জানেন, সবটাই বিজেপি করে দেয়।

ইদের দিন ভোট নিয়ে মমতা কমিশনের তীব্র সমালোচনা করেন। মুর্শিদাবাদের দুই বিধানসভা কেন্দ্রের দুই প্রার্থীর মৃত্যুর জন্য ভোটগ্রহণ স্থগিত ঘোষণা করেছিল নির্বাচন কমিশন। সোমবার পরিবর্তিত দিন জানায় নির্বাচন সদন। জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জে ভোটগ্রহণ হবে ১৩ মে। এদিন মমতা বলেন, শুনলাম ওইদিন ইদ রয়েছে। কমিশন বোধহয় তাদের ক্যালেন্ডারে দেখতে ভুলে গেছে। তবে ইদ হোক আর দুর্গা পুজো- মানুষের ভোট দেওয়া আটকানো যাবে না।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More